Android Apps

Top 10 Voice Recorder App For Android 2020 Best

Top 10 Voice Recorder App চলুন দেখে নেই সেরা কিছু Voice Recorder App যা আপনাকে প্রফেশনাল কাজ করতে সহযোগিতা করবে।

 

Top 10 Voice Recorder App


Top 10 Voice Recorder App ছাড়াও সেরা Android Games এবং Apps নিয়ে আর্টিকেল শেয়ার করেছিলা। আজ আমি সেরা Voice Recorder App এর তালিকা প্রকাশ করতে চলেছি। 

দেখুন, যে কোনও Android মোবাইলের অন্যতম দরকারী বৈশিষ্ট্য হলো রেকর্ড করার ক্ষমতা। Voice Recorder App গুলো সাধারণত বক্তৃতা, সভা, অনুষ্ঠান, অপরাধ, সঙ্গীত  ইত্যাদি রেকর্ড করতে ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

Android মোবাইল গুলোতে Build ভয়েস রেকর্ডার থাকে। কিন্তু Build App গুলো থাকে শুধু Basic Feature. তাই আপনি যদি Call Recording করার জন্য ব্যবহার করেন তাহলে ঠিক আছে।

আর আপনি যদি Expert দের মত Recording করতে চান তবে খুজে নিতে হবে সেরা গুলো থেকে।
কারন এখানে আপনি বাড়তি অনেক সুবিধা পাবেন যা Build App টিতে পাবেন না।

সুতরাং চলুন দেরী না করে শুরু করা যাক আজকের Top 10 Voice Recorder App Review:


Google Play Store এ অসংখ্য Voice Recorder App রয়েছে। যার ভিতর থেকে সেরাটা খুজে পাওয়া অনেক কষ্ট সাধ্য কাজ। তাই আজকের তালিকাতে সে সব App রেখেছি যা সবথেকে বেশী Positive Rating পেয়েছে।

Top 10 Voice Recorder App

 

1. Easy Voice Recorder

গুগল প্লে স্টোরটিতে এটি এখন সেরা এবং Top Rated ভয়েস রেকর্ডার App. এই App বর্তমানে হাজার হাজার ব্যবহারকারী অডিও রেকর্ড করতে ব্যবহার করেছেন। Easy Voice Recorder এর আকর্ষণীয় ফিচার হলো Screen Off থাকলেও এটি অডিও রেকর্ড করতে সক্ষম। যদি ফাইল সাপোর্ট  সম্পর্কে বলতে যাই। Easy Voice Recorder টি  WAV, AMR, PCM, ইত্যাদি অডিও Format সমর্থন করে।
 
 

2. Voice Recorder

Easy Voice Recorder এর তুলনায় Voice Recorder আরো বেশী ফিচার নিয়ে তৈরী। এর সাউন্ড Recording quality অনেক ভালো আর সাথে রয়েছে sensitivity. 
আপনি Recording করা ছাড়াও অনেক কাজ করতে পারবেন। যেমনঃ-
আপনার Recording কে cut, trim, merge করতে পারবেন।
 
 
 

3. Parrot Voice Recorder

আমাদের তালিকায় থাকা এটা একটি ইউনিক Recorder App. কারন এই App আপনাকে speaker, mic, ছাড়াও Bluetooth mic ব্যবহার করার সুবিধা দিয়ে থাকে। এছাড়াও Parrot সাপোর্ট করে Android wear. আরো আছে আপনি চাইলে সরাতে পারবেন  background noise অথবা echo আপনার রেকোর্ডিং থেকে। তারপরেও থাকছে volume boost, bass boost, preset reverb ইত্যাদি Tools গুলোকে নিয়ে কাজ করার সুবিধা।
 
 

4. Rewind: Reverse Voice Recorder

আপনি যদি Note, Memo, নজরদারী Record করার জন্য কোন Android App খুজে থাকেন তবে এটা হতে পারে সেরা পছন্দ। 
অনুমান করুন App টি আপনাকে কি ধরনের সুবিধা দিতে পারে ?
প্রথমত App টি Background এ চলতে সক্ষম। আর পাশাপাশি এটা যা শুনবে তা রেকোর্ড করতে সক্ষম। হোক তা আশেপাশের প্রতিধ্বনি।
shake করে Record চালু করতে পারবেন কিংবা gestures ব্যবহার করে।
 
 

5. Voice Memos

App টির নাম যেমন কাজটাও ঠিক তেমন। এই App তৈরী করা হয়েছে Voice Memo Record করার জন্য। Voice Memo বেশী ব্যবহার করে থাকে Student দীর্ঘ বক্তৃতা Record করার জন্য। আপনি অ্যাপ্লিকেশনটি সাক্ষাত্কার রেকর্ড করতে বা সেশন মিটিং ইত্যাদির জন্যও ব্যবহার করতে পারেন।
রয়েছে Voice Tag ফিচার যার মাধ্যমে Recording শেষে Access করতে সুবিধা হবে।
 
 

6. Samsung Voice Recorder

এটি তালিকার আরও একটি সেরা ভয়েস রেকর্ডার অ্যাপ্লিকেশন যা আপনাকে একটি সহজ এবং দুর্দান্ত রেকর্ডিংয়ের অভিজ্ঞতা সরবরাহ করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। এটা উচ্চমানের শব্দ রেকর্ড করতে যথেষ্ট সক্ষম। তবে সমস্যা হলো এটা কেবল স্যামসাং স্মার্টফোনে কাজ করে।
 
 

7. Smart Recorder

 
আপনি যদি Android স্মার্টফোনের জন্য সহজেই ব্যবহার করার যোগ্য এমন কিছু সন্ধান করে থাকেন তবে Smart Recorder একবার চেষ্টা করে দেখুন। Smart Recorder একটি সেরা App যা দিয়ে আপনি উচ্চ-মানের এবং দীর্ঘ সময়ের ভয়েস রেকর্ডিংয়ের জন্য ব্যবহার করতে পারবেন। Smart Recorder এর কয়েকটি উন্নত বৈশিষ্ট্য রয়েছে যেমন লাইভ অডিও spectrum analyzer, wave/PCM encoding ইত্যাদি।
 
 

8. Hi-Q MP3 Voice Recorder

অ্যাপটি ব্যবহারকারীদের অন্যতম ফিচার সরবরাহ করে যা অডিও এর মান কে কাস্টমাইজ করতে ব্যবহার করা যেতে পারে। শুধু তাই নয় High Quality MP3 ভয়েস রেকর্ড করা যাবে। সাথে ড্রপবক্স এবং গুগল ড্রাইভের মতো ক্লাউডে রেকর্ডিংগুলি আপলোড করার ফিচার যুক্ত রয়েছে। আর High Quality Mp3 রেকোর্ড এবং Cloud ফিচার এর কারনে এটাও সেরার তালিকায় রয়েছে ২০২০ সালে।
 
 

9. Call Recorder

এটি মূলত স্মার্ট ভয়েস রেকর্ডার এবং Caller ID অ্যাপ্লিকেশন। তবে অ্যাপটি Native ভয়েস রেকর্ড করতেও ব্যবহার করা যেতে পারে। Call Recorder এর দুর্দান্ত ফিচার হলো এটি আপনার ভয়েসকে একাধিক Audio Format গুলোতে সঞ্চয় করার সুবিধা দিবে। যেমন AMR, WAV, AAC, MP3 ইত্যাদি। এতে রয়েছে Material Design ইন্টারফেস যার ফলে কম র‌্যাম এবং খরচ করে থাকে।
 

10. Automatic Call Recorder

স্বয়ংক্রিয় কল রেকর্ডার সহ, আপনি সহজেই ভয়েস নোট এবং মেমো রেকর্ড করতে পারবেন। শুধু তাই নয়, অ্যাপটি ব্যবহারকারীদের Social Platform গুলোতে তাত্ক্ষণিক Chat কিংবা Message Sending অ্যাপ্লিকেশনগুলির মাধ্যমেও Edit, Delete, Backup এবং ভয়েস রেকর্ডিংগুলি ভাগ করতে সুবিধা করে দেয়। অ্যাপটি Android ব্যবহারকারীদের কাছে প্রচুর জনপ্রিয় এবং এটি কল রেকর্ডিংয়ের জন্য ব্যবহৃত হয়।
 
তাহলে শেষ হয়ে গেলো Top 10 Voice Recorder App For Android 2020 এর তালিকা।
যদি আর্টিকেল টি উপকারে আসে তবে লাইক এবং কমেন্ট করে জানাবেন।
আর উৎসাহ দিতে চাইলে শেয়ার করে দিয়ে পাশে থাকুন।

তাহলে আজকের মত বিদায়। দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।

লেখকঃ ইসমাঈল হোসেন ( সৌরভ )

Youtube | Page | Group | Website

Crypto Tab Browser দিয়ে Bitcoin Earn করুন শুধু মাত্র Surfing করে – Android/PC

Crypto Tab Browser যা ব্যবহার করছে ১০ মিলিয়ন মানুষ। কারন Browsing করার জন্য তারা Bitcoin Payment করে।

আমরা তো কম বেশী সবাই ইন্টারনেট Expert তাই না। আর তাই আমরা প্রতিদিন কারনে অকারনে Browsing করে থাকি। তবে কেমন হয় যদি Browsing করার পাশাপাশি যদি কিছুটা Earn করা যায়।

Crypto Tab Browser টি Chrome এর মত। আর পাশাপাশি আপনি সকল Addons ব্যবহার করতে পারবেন। তাই আশা করি Chrome Lover দের সমস্যা হবে না।

Crypto Tab Browser Feature:-

Crypto Tab Browser এর মূল আকর্ষন হলো Bitcoin Mining. আর এই ফিচারের জন্য বিশ্বের সেরা Mining Browser ধরা হয়। বর্তমানে ১০ মিলিয়নের ও বেশী মানুষ Bitcoin Mining করে Earn করছে।

Crypto Tab Browser দিয়ে Browsing করলেই জমা হবে Bitcoin. আর বাড়তি কোন ঝামেলা নেই। আর সব থেকে বড় কথা তাদের Trust করতে পারেন। আমি গত ২ বছর ধরে তাদের সাথে আছি। 

Crypto Tab Browser এ আপনি পাবেন  Import করার সুবিধা। ধরুন অন্য কোন Browser আপনি ব্যবহার করেন। আর সেখানে রয়েছে BookMark, History অথবা Password সঞ্চয় করা। কোন সমস্যা নেই আপনি যে কোন Browser থেকে সকল কিছু Import করে নিতে পারবেন।

১ লক্ষ ৫০ হাজার + Extension রয়েছে। তাই আপনি প্রয়োজন অনুযায়ী যে কোন Extension ব্যবহার করতে পারেন।

Mining করার জন্য আপনাকে আলাদা কোন সামগ্রী ক্রয় করতে হবে না। শুধু আপনার পছন্দের সাইট গুলো ভিজিট করে ইন্টারনেট এর সাথে যুক্ত থাকতে হবে। Crypto Tab Algorithm এর উপর ছেড়ে দিয়ে নিজে শুধু Surfing করুন।

Browser Mining করার পাশাপাশি আপনি Earn বাড়াতে পারবেন। যেমন ধরুন আপনার বন্ধুকে Invite করে। আর আপনার বন্ধু যদি ডাউনলোড করে আপনার রেফার লিংক থেকে। আপনি পাবেন তার Earn করা অনুযায়ী কিছুটা কমিশন।

আর Referal এর জন্য রয়েছে Level.যত বেশী Refer করতে পারবেন ঠিক ততোটা Level Up হবে। 

আর Level Up করতে পারলে কমিশন একটু বেশী পাবেন।

তাহলে আর দেরী কেন আজকেই ডাউনলোড করে ফেলুন। আর শুরু করে দিন Crypto Mining. এত মানুষ যখন এর পিছনে সময় দিচ্ছে তবে আপনি দিলে ক্ষতি কি।

আর বলে নেই আমি এখান থেকে দুইবার Payment নিয়েছি। আর পাশাপাশি আমার Refer Level 5.

গত এক বছরে আমার Refer সংখ্যা দাড়িয়েছে ২০০+

আপনার কাজ হবে ডাউনলোড এবং Install করা। আর আপনার জিমেইল একাউন্ট দিয়ে লগিন করা। আর সবশেষে সর্বনিম্ন 0.00001 Bitcoin হলে Coinbase Payment পাবেন।

Crypto Browser Screenshort:-

এবার আপনাদের মাঝে যারা ডাউনলোড করতে ইচ্ছুক নিচে দেখুন।


Download Link



আজকের পর্ব এখানেই শেষ করছি। আগামীপর্বে থাকছে জমা করা Bitcoin উত্তোলনের উপায়।



জানিনা ভালো লেগেছে কিনা। যদি ভালো লেগে থাকে তবে লাইক কমেন্ট এবং শেয়ার করে দিন।

আপাদত বিদায় নিচ্ছি। দেখা হবে অন্য কোন সময় নতুন কিছু নিয়ে।

লেখকঃ ইসমাঈল হোসেন (সৌরভ)

                ওয়েব সাইট । পেজ । গ্রুপ

Facebook Lite Dark Mode on Any Android | Download Now

আসসালামু আলাইকুম
কেমন আছেন সবাই?
আশাকরি ভালোই আছেন।

আমি Jack. CEO & President of Onion Gammers

আমরা যারা রাত জাগা পাখি, রাত জেগে ফেসবুক চালাই। আপনি কি জানেন আমাদের চোখের কত ক্ষতি হয়?

আমি তো ডাক্তার নই, তাই সঠিকভাবে বলতে পারছি না। তবে এতটুকু বলতে পারি যে, ফেসবুকের এই সাদা ও নীল রঙ আমাদের। চোখের অনেক ক্ষতি করে। খুব অপ্ল বয়সেই আপনি আপনার চোখ হারাতে পারেন।

ভয় পাবেন না…

আপনার এবং আমার মতো রাত জাগা পাখিদের কথা মাথায় রেখে কিংবা বিবেচনা করেই চলে এলো Dark Mode.

যা রাতের আধারে আপনার চোখ কে কিছুটা হলেও সস্তি দেবে৷

ভাষন অনেক দিলাম। চলুন, এবার জেনে নেই এভাবে Dark Mode Active করতে হয়।

তেমন কিছুই করতে হবে না।

প্রথমে আপনি নিচের লিংক থেকে আ্যাপ টি ডাউনলোড করে নিন অথবা Playstore থেকে ডাউনলোড বা আপডেট করে নিন।

এরপর নিচের স্ক্রিনশট অনুযায়ী একটিভ করে নিন।

আপনার মূল্যবান সময় দিয়ে আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ৷ ফেসবুক সম্পর্কে কি জানতে চান বা শিখতে চান, তা নিচে কমেন্ট করে জানান।

  • ধন্যবাদ (Jack Sir)

আপনার Android মোবাইলে ব্যবহার করুন Amazon Alexa ফিচার কিংবা তার Alternative App বিস্তারিত দেখুন

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়ে গেলাম Alexa ফিচার যেভাবে ব্যবহার করা যায় তা নিয়ে আলোচনা করার জন্য তাহলে চলুন শুরু করা যাক।




Alexa মূলত ভয়েস এর মাধ্যমে কন্ট্রোল করা যায় এটা Amazon Assistant এর ডিভাইস যা আপনার ভয়েস কে কমান্ড হিসাবে প্রসেসিং করে সে অনুযায়ী কাজ করতে পারে। এটা বর্তমানে Smart Home ডিভাইস হিসাবেও ব্যবহার হচ্ছে আর এর প্রধান ফিচার হলো এটা আপনার প্রশ্নের উত্তর দিতে সক্ষম তবে অদ্ভুত টাইপের প্রশ্ন করলেও উত্তর না পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশী। এছাড়াও Alexa কে কমান্ড দিয়ে অল্প সংখ্যক কিছু কাজ করা যায় যেমন ধরুন গান বাজানো, বই পড়া ইত্যাদি। তাহলে কেমন হবে যদি এই Alexa ফিচার আপনার Android মোবাইল থেকে উপভোগ করা যায়।




তো এই ছোট্ট ট্রিক এর জন্য পোষ্ট বড় করবোনা তাই চলুন দেখে নেই কিভাবে এই ফিচার আপনার Android থেকে ব্যবহার করবেন তা জেনে নেওয়া যাক।



amzn_assoc_tracking_id = “darkmagician2-20”;
amzn_assoc_ad_mode = “manual”;
amzn_assoc_ad_type = “smart”;
amzn_assoc_marketplace = “amazon”;
amzn_assoc_region = “US”;
amzn_assoc_design = “enhanced_links”;
amzn_assoc_asins = “B07FZ8S74R”;
amzn_assoc_placement = “adunit”;
amzn_assoc_linkid = “4f62f2892e3376737e92e10f98c403e3”;
তাদের মূল অফিশিয়াল এপ এর নাম Amazon Alexa তবে সমস্যা হলো এটা আমার কম দামী ডিভাইসে সাপোর্ট করছেনা তবে এপ এর লিংক নিচে দিয়ে দিচ্ছি চাইলে আপনার ডিভাইসে চলবে কিনা তা চেখে দেখতে পারেন।


কন্ট্রোল করা তেমন বেশী কঠিন নয় তাই এর টিউটোরিয়াল দেওয়ার প্রয়োজন মনে করলাম না।

Download Amazon Alexa

আর অন্য দিকে আমার ডিভাইসে যেহেতু সাপোর্ট করেনা তাই দমে গেলে চলবে এর Alternative কিছু খুজতে থাকলাম এবং সবশেষে এর সমাধান হলো তাই আমি Alternative এপ এর লিংক টাও দিয়ে দিচ্ছি যাতে আপনার ডিভাইসে Amazon Alexa সাপোর্ট না করলেও যাতে Alternative এপ টি সাপোর্ট করে।


Amazon Alexa এর বিকল্প এপ এর নাম Reverb for Amazon Alexa যার সাইজ মাত্র 12 MB চলুন কিছু স্ক্রিনশর্ট দেখে নেওয়া যাক এবং শেষ প্রান্তে ডাউনলোড লিংক।


তো আপনি যেভাবে কন্ট্রোল করবেন হয় উপরের ন্যায় বাটনে চেপে ধরে তাকে প্রশ্ন করবেন তাহলে উত্তর পাবেন আর নয়তো ভয়েস কমান্ড একটিভ করতে পারেন সেটিংস থেকে যেমন আমি করে রেখেছি hey Alexa আর যখন ওয়ার্ড টি উচ্চারন করা হবে তখন এপ আপনার কথা বুঝার চেষ্টা করবে এবং সে অনুযায়ী সোর্স থেকে বেছে নিয়ে আপনার উত্তর দিবে তবে শুধু শুধু বাংলায় কিছু প্রশ্ন এখন করা যাবেনা নয়তো সে বলে উঠবে সরি আমি আপনার কথা বুঝতে পারি নি এটা আগামীতে করা যাবে হয়তো।

Reverb For Amazon Alexa

Download Link

আশা করি মজা করার জন্য হলেও টেস্ট করে দেখবেন আর যদি ভালো লাগে আর্টিকেল টি তবে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।

তাহলে এখনকার মত বিদায় দেখা হবে অন্য কিছু নিয়ে ভিন্ন কোন সময়ে চাইলে আমার ছোট্ট ব্লগ থেকে ঘুরে আসতে পারেন নিচে লিংক।

www.DarkMagician.Xyz

সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স

GlassWire – Personal Firewall & Network Monitor আপনার Computer এর জন্য নিয়ে নিয়ে 99 ডলার মূল্যের Software সাথে Android Pro ভার্সন

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়েছি অনেক ভালো মানের সফটওয়্যার GlassWire যা কাজ করবে আপনার  Personal Firewall হিসাবে এবং Network Monitor করবে আপনাকে High Security দিবে আর আমি শেয়ার করতে যাচ্ছি Elite ভার্সন তাহলে চলুন শুরু করা যাক।



GlassWire আপনার নেটওয়ার্ক এর সুরক্ষা দিবে এবং এর সাথে বিল্ড আছে সিকিউরিটি টুলস এবং পার্সোনাল Firewall ফিচার যা আপনার অনেক কাজ সহজ করে দিবে এবং আপনি চাইলেই এই সফটয়্যার মাধ্যমে যখন তখন দেখতে পারবেন আপনার ডাটা খরচের Visual Graph.


এছাড়াও এর অনেক ফিচার রয়েছে যার মাঝে কিছু ফ্রি ভার্সনে কাজ করবে আর বাকী গুলো প্রিমিয়াম ভার্সনের জন্য নির্ধারিত চলুন একটু আইডিয়া নেওয়া যাক।

চলুন তাহলে আরো বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক GlassWire – Personal Firewall & Network Monitor সম্পর্কে।

GlassWire কাজ করবে আপনার নেটওয়ার্কের মনিটর করার জন্য।
অনেকটা নেটওয়ার্ক টাইম মেশিনের মত এবং আপনাকে এলার্ট করবে সবধরনের ডাটা খরচ করা সফটওয়্যার গুলো সম্পর্কে।
 আপনাকে তথ্য দিবে কে আপনার ওয়াইফাই নেটওয়ার্কের আওতায় রয়েছে বা কে নতুন কানেক্ট হয়েছে।
এতে রয়েছে প্রাইভেসি সুরক্ষা রাখার ইঞ্জিন যা আপনাকে দূরে রাখবে খারাপ তথ্য চুরির হাত থেকে।
যে কোন কিছুতেই ডাটা খরচ কিংবা কানেক্ট করার জন্য আপনার অনুমতি চাইবে সাথে আছে এপ ব্লক সিস্টেম এবং ডাটা মনিটর গ্যাজেট।

আপনার সাথে কোন প্রকার ওয়াইফাই হ্যাকিং চলবেনা কারন আপনার GlassWire এ থাকছে WiFi Evil Twin Detection.
থাকছে Multiple Server Monitoring এর ব্যবস্থা।
পাবেন অনেক সুন্দর কিছু Theme যা দিয়ে মনের মত করে কালারফুল বানাতে পারবেন।
আপনার পার্সোনাল firewall এর ব্যবস্থা যেখান থেকে আপনি সব নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন। 


আপনার কোন সফটওয়্যার কি পরিমান ডাটা খরচ করছে তার বিবরন।
এই সব ফিচার গুলো একসাথে উপভোগ করতে চাইলে ১ পিসির জন্য ৩৯ ডলার ৩ পিসিতে ৫০ ডলার এবং ১০ পিসির জন্য ৯৯ ডলার ডিসকাউন্ট ব্যতীত কিন্তু চিন্তা নাই আপনাদের ভাই Elite ভার্সন এর লিংক নিচে যুক্ত করে দিয়েছে শুধু ডাউনলোড করে নিন।



PassWord:  DarkMagician.Xyz

How To Install


Android ব্যবহার যারা করেন তারা আপনার Android থেকে এপ টি চালাতে চাইলে নিচের লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিন।


যদি ভালো লেগে থাকে তবে নিজের মতামত জানাতে ভুলবেন না কিন্তু তাহলে এখান থেকে বিদায় দেখা হবে অন্য কোন সময় নতুন কিছু নিয়ে তবে চাইলে আমার ছোট্ট ব্লগ থেকে ঘুরে আসতে পারেন নিচের লিংক থেকে।


চলে এলো ডার্ক ম্যাজিশিয়ান টিম এর গেমস প্লে স্টোরে Ludo Lite মাত্র 1MB

লুডু খেলতে তো আমরা কম বেশী সবাই পছন্দ করি। তবে আপনারা জেনে থাকবেন তাতে থাকে অনেক এড যা আমাদের খেলার সময় অনেক ডাটা খরচ করে থাকে আর অনেকটা বিরক্তির বিষয় তাই বানানো হয়েছে এড বিহীন এই লাইট ভার্সন গেমস টি।
লাইট ভার্সন এ জন্যই বলছি কারন গেমস টির সাইজ মাত্র 1 MB.
ভাবছেন ১ MB তে আর কি থাকবে তাদের জন্য উল্লেখ করছি এখানেও আপনি সব পাবেন যা লুডু কিং কিংবা অন্য গুলোতে পাচ্ছেন, এর মানে হলো সকল ফিচার এই এক MB তে পেয়ে যাবেন।
এটা মূলত মাল্টিপ্লেয়ার গেমস তাই যারা অফলাইনে খেলতে ইচ্ছুক তাদের অবশ্যই প্রথমে ডাটা চালু করে লোডিং না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে আর লোডিং শেষ হলে ডাটা অফ করে খেলা শুরু করতে পারবেন অফলাইনে।
আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে তবে ভালো লাগলে প্লে স্টোরে রিভিউ কিংবা কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।
তাহলে ডাউনলোড করে লাইট ভার্সনের লুডু গেমসটি সাইজ মাত্র 1MB.
অবশ্যই ডাউনলোড করে সাপোর্ট করবেন আমাদের তাহলে আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।
সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স

Emulator Player যারা আছেন তারা Android মোবাইল দিয়ে বানিয়ে ফেলুন আপনার PUBG Mobile গেমস এর জন্য Wifi Joystick

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়েছি Wifi Joystick বানানোর একটি সহজ ট্রিক নিয়ে তাহলে চলুন শুরু করা যাক।



আমরা অনেকেই তো ভালো পারফর্ম করার জন্য মোবাইলে OTG দিয়ে মাউজ কী বোর্ড সংযুক্ত করে পিসির মজা নিয়ে থাকি তবে আপনি কি কখনো পিসি Emulator এ খেলা PUBG Mobile মোবাইল দিয়ে কন্ট্রোল করার কথা ভেবেছেন হয়তো ভাবেন নি কারন কেই বা যাবে মাউস কী বোর্ড রেখে জয়স্টিক কিংবা মোবাইল দিয়ে খেলতে।

তবে বলে রাখছি আমি যে মেথড টি উপস্থাপনা করবো তা দিয়ে শুধু PUBG Mobile নয় চাইলে আপনি রেসিং, ফাইটিং, শুটিং ছাড়াও GTA V খেলতে পারবেন আপনার মোবাইল কে জয়স্টিক বানিয়ে।


শুধু উপরের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয় আপনি আরো যা করতে পারবেন তার মধ্যে উল্লেখ যোগ্য কিছু ফিচার হলো মোবাইলের স্ক্রীন পিসির মনিটরে প্রজেক্ট করতে পারবেন আবার চাইলে পিসিকে মোবাইল দিয়ে  রিমোর্ট কন্ট্রোলারের মত চালাতে পারবেন ফাইল আদান প্রদান করতে পারবেন চাইলে মোবাইল কে পিসির Microphone বানাতে পারবেন ধরুন ইউটিউব ভিডিও বানাচ্ছেন কিন্তু Extra Microphone নেই তখন এই আইডিয়া কাজে লাগাতে পারেন আবার মোবাইল কে পিসির সিসি ক্যামেরায় রুপ দিতে পারবেন অথবা পিসিকে সিসি ক্যামেরা বানিয়ে মোবাইল দিয়ে দেখতে পারবেন এবার চাইলে গোয়ান্দাগিরি করতে পারেন নয়তো একা ভিডিও বানানোর সময় মোবাইল দিয়ে কন্ট্রোল করে কাজটা আরো সহজ করতে পারেন আরো আছে Power Point প্রজেক্ট গুলো সরাসরি পিসির মনিটরে দেখাতে পারবেন যেমন ধরুন অফিসে কোন প্রজেক্ট দেখাতে হবে সাথে পিসি নেই কিন্তু মোবাইলে ফাইল আছে তখন এই বুদ্ধিটি কাজে লাগাতে পারেন।


তাহলে এই তো গেলো সফটওয়্যার এবং এপ এর কাজ নিয়ে আলোচনা এবার আসি কাজটি করতে যা দরকার পড়বে তার প্রসঙ্গে।

প্রথমত আপনার একটি Laptop কিংবা ডেস্কটপ থাকা চাই আর যদি ডেস্কটপ হয় তবে USB Wifi Device থাকতে হবে সাথে একটি Android মোবাইল ব্যস হয়ে গেলো আপনার ডিভাইসের সমাধান তারপর আপনার দরকার পড়বে একটি পিসি সফটওয়্যার এবং একটি Android App যার লিংক আমি পোষ্টের শেষ প্রান্তে যুক্ত করে দিয়েছি ডাউনলোড করে নিবেন নিজ দায়িত্বে এবং পরের কার্য ধাপ গুলো একবার নজর বুলিয়ে নিন।


তাহলে প্রথমে আপনার পিসি সফটওয়্যার টি ইন্সটল করুন এবং ওপেন করুন।



অন্যদিকে আপনার Android মোবাইলে App টি ডাউনলোড করুন এবং ইন্সটল এবং ওপেন করুন।



এবার আপনার Androi Mobile এপ থেকে Connect বাটনে ক্লিক করুন।


আপনার পিসির নাম আসলে কানেক্ট করুন।

যদি কানেক্ট হয়ে যায় তবে আমি উপরে যা উল্লেখ করেছি সবকিছু করার জন্য আপনি প্রস্তুত।


আর আপনি যদি সত্যি PUBG Mobile খেলতে চান তবে GamePad বাটনে ক্লিক করুন এবং Shooting Mode নির্বাচন করুন এবং Emulator এ প্রবেশ করে আরামসে খেলতে থাকুন মোবাইল কে Gamepad হিসাবে ব্যবহার করে। আমি আর বিস্তারিত তে যাচ্ছিনা কারন আপনারা এর সেটিং গুলো একবার দেখলেই কার্য পদ্ধতি বুঝে যাবেন।

আর হ্যা আপনার আপনার ডিভাইসের যদি কী বোর্ড নষ্ট থাকে তবে আপনার Android টি হতে পারে আপনার দুঃসময়ের সঙ্গী।
তাহলে ভালো থাকবেন আর হ্যা আমার আর্টিকেল যদি আপনার ভালো লাগে তবে কমেন্ট করে আপনার মূল্যবান মতামত জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।


তাহলে আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে চাইলে আমার ছোট্ট ব্লগ থেকে ঘুরে আসতে পারেন নিচে লিংক দেওয়া রইলো।


সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স

Android মোবাইলকে বানিয়ে ফেলুন আপনার কম্পিউটারের Remote খুব সহজে আর দূরে বসেই Control করুন

আজকে আমরা করবো কম্পিউটারকে কন্ট্রোল নিজেদের Android মোবাইল দিয়ে চাইলে Wifi দিয়ে নয়তো যে কোন প্রান্তে বসে ডাটা কানেকশন দিয়ে তাহলে চলুন শুরু করা যাক।


TeamViewer, Ammy ইত্যাদি কতধরনের সফটওয়্যার তো আছে বাজারে তবে আজকে একটু অন্য ভাবে পিসিকে কন্ট্রোল করবো। এই ট্রিক টি অনেক কাজেই ব্যবহার করতে পারেন ধরুন আপনি  আপনার বন্ধু কিংবা কারো পিসিতে এই সেট আপ টি করে রাখলেন তার আড়ালে তবে Victim যখন ইন্টারনেট অনলাইন হবে তখন আপনি চাইলে আপনার মোবাইল দিয়ে তার পিসি কন্ট্রোল করে তাকে তাক লাগিয়ে দিতে পারবেন এটাতো গেলো কুবুদ্ধি এবার আসি কিভাবে ভালো কাজে লাগাতে পারেন ধরুন বন্ধুর পিসিতে সমস্যা করছে আর আপনার কাছে সমাধান চাইলো তখন আপনি তার পিসিকে যে কোন প্রান্তে বসে ঠিক করে দিলেন, অথবা আপনার পিসি আপনি বাসায় রেখে আসলেন আর আই মুহূর্তে পিসি দরকার হয়ে পড়লো  তখন এই সেটআপ করা থাকে তবে আপনি সহজেই যে কোন জায়গায় বসে পিসি টি চালাতে সক্ষম হবেন। তবে এই Method আপনি দুইভাবে ব্যবহার করতে পারবেন  Wifi দিয়ে নয়তো ইন্টারনেট ব্যবহার করে।


কাজটি করতে আমাদের যা দরকার হবেঃ

# কম্পিউটার 
# মোবাইল
# যাবতীয় টুলস

সর্বপ্রথম তো যে পিসিতে Connect করবেন অবশ্যই গুগল ক্রোম ইন্সটল থাকতে হবে আর মোবাইলে এর জন্য শুধু একটি App দরকার হবে তাই চলুন আগে ডাউনলোড এবং ইন্সটল এর কাজটা আগে শেষ করে ফেলি।

প্রথমে আপনার Android মোবাইল এর জন্য Chrome Remote Desktop App ডাউনলোড করে নিন নিচের লিংক থেকে সাথে ইন্সটল করে ফেলুন।

এবার আপনার পিসিতে একটি Extension ইন্সটল করতে হবে যার নাম Chrome Remote Desktop তাহলে নিচের লিংকে চলে যান এবং Add করে ফেলুন ক্রোম ব্রাউজারে।


এবং সবশেষে ডাউনলোড করে ফেলুন নিচের msi ফাইলটি এবং ইন্সটল করে ফেলুন পিসিতে।


এবার চলুন কানেকশন দেওয়ার পদ্ধতিটা দেখে নেওয়া যাক।

প্রথমে আপনার পিসিতে ক্রোম ব্রাউজারে প্রবেশ করুন এবং নিচের লিংকে চলে যান।




আপনার পিসির ব্রাউজারে উপরের মত দেখতে পাবেন Accept & Install বাটনে ক্লিক করুন।


এবার আপনার পিসির জন্য একটি নাম নির্বাচন করুন এবং Next বাটনে ক্লিক করুন।


এবার একটা প্রো লেভেলের পাসওয়ার্ড দিয়ে Start বাটনে ক্লিক করুন।


সব ঠিক মত করে ফেললে আপনার কানেকশন অনলাইন দেখাবে এবার মোবাইলের পালা আপনার ইন্সটল করে Apk ফাইলটি Open করুন।

সবথেকে মনে রাখার মত নোট হলো আপনার পিসিতে যে জিমেইল দিয়ে লগিন করা রয়েছে Apk ফাইলে গিয়েও সেই একই জিমেইল লগিন করা থাকতে হবে।
যদি কাজ টি করে থাকেন তবে নিচের মত দেখতে পাবেন আপনার মোবাইলে স্ক্রীনে ক্লিক করে দিন।



এবার আপনার কাছে পাসওয়ার্ড খুজবে সঠিকভাবে পূরন করে Connect বাটনে ক্লিক করুন।


কানেক্ট হয়ে গেলে আপনার মোবাইলের স্ক্রীনে কম্পিউটারের চিত্র টি চলে আসবে এবার যা মন চায় করুন যতটুকু আপনি করতে পারবেন আর কি?


তো আরো একটা স্ক্রীনশর্ট বোনাস এড করলাম বুঝানোর উদ্দেশ্যে।


উপরের ২টি চিত্র মোবাইল থেকে নেওয়া।

সবশেষে বলতেই হচ্ছে আপনি দূরে বসে কানেক্ট করতে হলে পিসিটাও অনলাইন থাকতে হবে।
আর ডাটা কানেকশন দরকার পড়বে এর জন্য।
আর কাছে থেকে কানেক্ট করতে চাইলে ওয়াইফাই দিয়েই চালাতে পারবেন।

জানিনা সম্পূর্ণ টিউটোরিয়াল বুঝিয়ে লিখতে সক্ষম হয়েছি কিনা তবে যদি ভালো লেগে থাকে তবে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।

তাহলে আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।
তবে চাইলে নিচের সৌজন্য লিংক থেকে আমার সাইট টি ভিজিট করে আসতে পারেন।
সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স – FB

২০ মিনিট এড দেখে নিয়ে নিন ২২ টাকা।পেমেন্ট নিন বিকাশ,বিটকয়েন,রিচারজ এ।(প্রুফ সহ)

আমি Refat আবার হাজির আপনাদের সাথে আরনিং অ্যাপ নিয়ে।যা দিয়ে আপনি সহজেই টাকা আয় করে তা বিকাশ,বিটকয়েন,রিচাজ এ নিতে পারবেন।

আসলে মূলত পোস্ট টা করা আমার মতো তাদের জন্য যারা অল্প সময় ফেইসবুকে নষ্ট করার বদলে সহজ কাজ করে কিছু টাকা পকেটে নিতে পারেন।
আসুন কাজের একটা ধারণা দিই।৩টি অ্যাপ সেয়ার করব।প্রতি অ্যাপ এ প্রতিদিন ৫ টি ক্লিক করতে পারেন।১ ক্লিকে ১.৫ টাকা।তাহলে প্রতিদিন পাচ্ছেন ৫*৩=১৫ ক্লিক এ পাচ্ছেন ১৫*১.৫=২২.৫ টাকা।যা আসলেই মাত্র ২০ মিনিটে কম্পলিট করতে পারবেন।অ্যাপ গুলোর কাজের সিস্টেম একদম সেইম কারন অ্যাপগুলো একজন এডমিনের।আর সে প্রতিদিন পেমেন্ট করছে।যার প্রুফ এখনই স্ক্রল ডাউন করে দেখে আসুন।পরে বাকি পোস্ট টা পড়ুন।এতে আপনার সন্দেহ দূর হবে।

অ্যাপ গুলোর লিংকঃ

১ম অ্যাপ

২য় অ্যাপ

৩য় অ্যাপ

তাহলে চলুন কাজটা বুজিয়ে দিই।

আপ্পগুলো চালু করলে এমন রেজিস্ট্রেশন ফরম আসবে।সেখানে যা যা চাচ্ছে তা দিবেন এবং সবগুলো অ্যাপ এ রেফার কোডঃ 01987295742
বলে রাখা ভালো রেফার ছাড়া অ্যাপ সাইন আপ করা সম্ভব না।


চলেন কাজের নিয়মে আসি।

সাইন আপ করার পর এমন পেইজ আসবে।এই পেইজে Earn Money তে ক্লিক করবেন।
এরপর এড দেখার জন্য পরের পেইজে থাকা Next বাটন এ ক্লিক করবেন।
এভাবে ১৫ টি এড দেখবেন এবং Finish বাটন আসলে ক্লিক করে এড এ ক্লিক দিবেন।এড এ ক্লিক এর ২০ সেকেন্ড পর নিজে নিজেই অ্যাপ এ ব্যাক চলে আসবে।ব্যাস পেয়ে যাবেন ১.৫ টাকা।মাত্র একটি ক্লিকে।এভাবে আপনি দিনে ৫ টি ক্লিক করতে পারবেন।এতে করে ৩ টি অ্যাপ দিয়ে আপনি প্রতিদিন পাবেন ২১.৫ টাকা।যা প্রতি অ্যাপ এর মেইন ব্যালেন্স ১২ টাকা হলেই রিচাজ,বিটকয়েন,বিকাশে নিতে পারবেন।

পেমেন্ট প্রুফঃ

তাই দেরি না করে এখনই শুরু করে দিতে পারেন।
ধন্যবাদ আমাদের সাথে থাকার জন্য।

2019 সালের Top Android Launcher গুলো এক নজরে দেখে নিন সাথে প্রিমিয়াম ভার্সন গুলো ফ্রি তে ডাউনলোড করে নিন

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়েছি 2019 সালের সেরা Android Launcher গুলো নিয়ে চলুন শুরু করা যাক। 


আমরা কম বেশী স্টাইল জিনিসটাকে পছন্দ করে থাকি তেমনি আমাদের শখের Android মোবাইলকে স্টাইলিশ দেখানোর জন্য আমরা অনেকেই Launcher ব্যবহার করে থাকি আজ সেই Launcher গুলো দেখে নিবো যা কিনা 2019 এর সেরা Launcher হিসাবে প্রাধান্য পাচ্ছে।



Best light and easy launchers:


Evie Launcher:
যারা খুব দ্রুত কাজ করে এমন Launcher খুজে থাকেন তারা ব্যবহার করে দেখতে পারেন।
স্টাইলিশ তো আছেই তাছাড়াও এটা সম্পূর্ণ Free এবং আপনি আপনার কাস্টমাইজ করা Layout এর
Backup রাখতে পারবেন আপনার Google Drive এ সরাসরি।
এর সম্পর্কে আরো জানতে কিংবা ডাউনলোড করতে চলে যান নিচের লিংকে।
Evie Launcher Download Link

Microsoft Launcher:
আপনি যদি ভেবে থাকেন যে Microsoft Android এর জন্য হুবহু উইন্ডোজ ফোন এর মত বানিয়েছে তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন। Microsoft Launcher কেবল Android এর জন্য Native
অভিজ্ঞতাই নয়, পাশাপাশি এটি Boot Time ফিচারের জন্য শীর্ষ-মানের, প্রায়ই এর আপডেট আসছে এবং
Nova Launcher ছাড়াও কয়েকটি Launcher এর মধ্যে এটি একটি – Edge-থেকে-Edge Widget Placement এবং Subgrid পজিশনিংও সরবরাহ করে থাকে!
তাছাড়াও আপনি চাইলে আপনার Microsoft Account টি Launcher এ লগিন করে Microsoft
এর কম বেশী সকল কাজ করতে পারবেন।
Microsoft Launcher Download Link

Best customization launchers:

Nova Launcher:
Nova Launcher দিয়ে আপনি Customize করার অসাধারন ফিচার উপভোগ করতে পারবেন।
আপনি পাবেন দ্রুত গতির Launcher এর অভিজ্ঞতা।আপনার Customize করা সকল কিছু আপনি
Backup রাখতে পারবেন। অন্যের Customize করা ফাইল আপনি Import করতে পারবেন।
Drawer আপনার মনের মত করে সাজিয়ে নিতে পারবেন সাথে Widget গুলো সবচেয়ে বড় কথা
এটা আমার পছন্দের Launcher গুলোর মধ্যে একটি তাই ডাউনলোড করতে চলে যান সরাসরি নিচের
লিংকে Play Store এর প্রাইম ভার্সনের দাম ৩০০ টাকা তবে ফ্রিতে লুফে নিতে চাইলে……
Nova Launcher Download Link

Action Launcher:
অসাধারন Theme Build ফিচারের পাশাপাশি পাবেন Fast Speed. Pie ভার্সনের মোবাইলের জন্য
অনেক কার্যকরী একটি Launcher. সম্পূর্ন Adaptable এর থেকেও বিস্তারিত জানতে ঘুরে আসুন
Google Play Store থেকে নিচে ডাউনলোড লিংক দেওয়া হলো।
Action Launcher Download Link

Honorable mention launchers:

Best app drawer: Smart Launcher 5
এই Launcher এ আপনি পাবেন home screen ফিচার সাথে থাকবে grid-less widget placement system. আরো থাকবে সম্পূর্ন নতুন ফিচার Page System ও Drawer ফিচার তো আছেই।
Gesture & Swipe ফিচার সহ এর মূল্য ৩৯০ টাকা আপনি চাইলে নিচের লিংক থেকে ফ্রি তে প্রো ভার্সন ডাউনলোড করে নিতে পারেন
Smart Launcher 5 Download Link

Best business launcher: BlackBerry Launcher
এই Launcher টি আপনাকে অনেক ডায়নামিক ফিচার দিতে সক্ষম আর এই Launcher টি
Shortcut Key এর জন্য অনেক জনপ্রিয়। এর ফিচার টি আপনাকে অনেক মজার অভিজ্ঞতা দিবে
চালনো টা ও সহজ আর DOD Certified মোবাইল BlackBerry এর ফিচার গুলোও এখানে আপনি
পাবেন প্রথম ৬০ দিন পর Advertise দেখানো আরম্ভ করবে তাই চাইলে Ad Free ভার্সন ক্রয় করতে
পারেন অথবা নিচের লিংক থেকে Mod ভার্সন ডাউনলোড করে নিতে পারেন।
BlackBerry Launcher Download Link

তাহলে কেমন লাগলো কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু আর আপনার কিছু জানার থাকলে কমেন্টে জানান ইনশাআল্লাহ সমাধানের চেষ্টা করবো।

আর আমার ভালো লাগা জোস একটি Launcher ডাউনলোড করতে নিচের পোষ্ট টি একবার ঘুরে আসুন।

সব কিছুতেই তো স্টাইল খুজেন এবার আপনার হাতের Smart মোবাইল কে দিন স্টাইলিশ ডিজাইন হয়ে যান Stylish Mobile এর Boss

তাহলে আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।

সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স।

Share IT আপডেট ভার্সন ডাউনলোড করে নিন আপনার পিসি কিংবা Android এর জন্য

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়েছি Share It এর আপডেট ভার্সন আপনার কম্পিউটার এবং মোবাইলের জন্য তো চলুন শুরু করা যাক।






আপনারা সবাই Share It নামটার সাথে পরিচিত কারন Android থেকে ফাইল শেয়ার করার জন্য এই সফটওয়্যার এর ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তবে আপনি চাইলে এই Share It আপনার পিসিতে ইন্সটল করতে পারেন এবং মজা নিতে পারেন ফাইল শেয়ারিং করার তা যাই হোক না কেন পিসি থেকে পিসি অথবা মোবাইল থেকে মোবাইলে।

এটা নিয়ে বিস্তারিত বলার দরকার হবেনা আশা করি কারন কম বেশী সবাই Share It এর সাথে পরিচিত তাই আমি সরাসরি ডাউনলোড লিংক শেয়ার করছি আর চিন্তা করবেন না আপডেট ভার্সন টিতে অনেক পরিবর্তন আনা হয়েছে  আর আগের সকল সমস্যার সমাধান করা হয়েছে তাই শেয়ার করছি ডিভাইস অনুযায়ী ডাউনলোড করে নিন।





Computer Share It – Download Link
এবং
Android Share It – Download Link


তাহলে এই পোষ্ট থেকে বিদায় নিচ্ছি দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।
সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স

Android Mobile কে বানিয়ে ফেলুন কম্পিউটারের Mouse/Keyboard কিংবা Joystick সাথে 420 টাকা মূল্যের App ফ্রি

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়েছি মজার একটি ট্রিক নিয়ে যার মাধ্যমে আপনি চাইলে আপনার হাতের Android মোবাইলকে আপনার কম্পিউটারের মাউস , কী-বোর্ড  কিংবা জয়স্টিক হিসাবে ব্যবহার করতে পারবেন তাহলে চলুন শুরু করা যাক।






আমরা সাধারণত কম্পিউটার অপারেট করার জন্য Mouse , KeyBoard কিংবা Joystick এর ব্যবহার করে থাকি তবে কেমন হবে যদি আপনার হাতের মোবাইল টি দিয়ে এই তিনটি কাজ একসাথে করা যায়। হয়তো সব সময় কাজে লাগবেনা কিন্তু ধরুন আপনার পিসির মাউস নষ্ট হয়ে গেছে আর এখন আপনি মাউস ছাড়া পিসি অপারেট করে সুবিধা করতে পারবেন না তখন হয়তো এই আইডিয়া কাজে লাগাতে পারেন অথবা ওয়াই ফাই মাউস কী বোর্ড এবং জয়স্টিক না থাকলে তার বিকল্প হিসাবে ব্যবহার করতে পারবেন। অথবা চাইলে গেমস খেলার সময় দূর থেকে বসে আপনার মোবাইল থেকে কন্ট্রোল করতে পারবেন।


তো আশা করি কি কাজে লাগানো যাবে তা বুঝতে পেরেছেন।


তো এই কাজ টি আপনার ডেক্সটপ কিংবা ল্যাপটপ উভয় কম্পিউটারের জন্যই ব্যবহার করতে পারবেন। আর বলে নেওয়া ভালো হবে যে ল্যাপটপ এ বিল্ড ইন ওয়াই ফাই কিংবা ব্লু টুথ থাকে তাই ল্যাপটপ ব্যবহার কারীদের সমস্যা হবেনা কিন্তু যারা ডেক্সটপ ব্যবহার কারী তাদের অবশ্যই Wifi / Bluetooth ডিভাইস থাকতে হবে নয়তো কাজে আসবেনা আপনি চাইলে USB WIFI কিনে নিতে পারেন দাম কম আছে।




এবার আসেন যা লাগবে তা নিয়ে আলোচনা করা যাক,


প্রথমত Android এর জন্য একটি APK লাগবে নিচের লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিন।






Download Apk



এবার ডাউনলোড হয়ে গেলে আপনার কম্পিউটারের জন্য একটি সফটওয়্যার লাগবে নিচের লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিন। যেহেতু আমাদের দুটি ডিভাইসের মাঝে সম্পর্ক স্থাপন করবো তাই ওয়াই ফাই এর পাশা পাশি ছোট্ট সাইজের একটি সফটওয়্যার পিসিতে ইন্সটল করতে হবে নিচে লিংক।



 Download Exe




এবার আপনি যদি আপনার দুটি ডিভাইসে ডাউনলোড করা Apk এবং Exe যথাযথ জায়গায় ইন্সটল দিয়ে থাকেন তবে আসুন মূল কাজ কিভাবে করবেন দেখাচ্ছি।




 প্রথমে আপনার মোবাইল থেকে Hotspot চালু করে আপনার কম্পিউটার এর সাথে কানেক্ট করে নিন তাহলে কাজটা সহজ হবে।
এবার আপনার মোবাইল থেকে Wifi Mouse  Apk তে প্রবেশ করুন।

উপরের মত দেখাবে এবার আপনি আপনার পিসি থেকে Wifi Mouse Application টি চালু করুন ওয়াইফাই সহকারে।

দেখুন আমার কম্পিউটার এর নাম দেখাচ্ছে আপনার টা দেখালে ক্লিক করুন সামনে আগান।



আপনার পিসিতে কানেক্ট হলে উপরের মত একটি নোটিশ দেখাবে।

উপরের মত আসলে আপনি মাউস ব্যবহার করার জন্য প্রস্তুত এছাড়াও Keyboard,  Joystick, SreenShort, Presentation, Browse এবং পিসি Application  মোবাইল দিয়ে চালু করতে পারবেন।

 গেমস খেলার সময় Joystick হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন।

কিংবা লেখালিখি করতেও কী-বোর্ড ব্যবহার করতে পারেন শুধু মাত্র ক্লিক করে।

শুধু তাই নয় পিসির ফাইল ঘাটতে পারবেন File Browser এ গিয়ে ShutDown এ চেপে পিসি বন্ধ করে দিতে পারবেন। Remote Desktop ও ব্যবহার করতে পারবেন। মিডিয়া প্লেয়ার কন্ট্রোল করতে পারবেন।


একবার ভেবে দেখুন আপনার Android টি দিয়ে আপনি কত কিছু করতে পারছেন ইনশাআল্লাহ আগামীতে এর থেকেও ভালো কিছু উপহার দেওয়ার চেষ্টা করবো সে পর্যন্ত ভালো থাকুন।


আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।


সৌজন্যে: সাইবার প্রিন্স