PC Tips

জীবনে HardDisk ছাড়া কম্পিউটারে Windows চালিয়েছেন এবার আসুন HardDisk ছাড়া চালাবো Windows

হ্যালো প্রিয় বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন
আজ আপনাদের মাঝে হাজির হয়েছি অন্য রকম কম্পিউটার অপারেট এর ট্রিক নিয়ে। আজকের পোষ্টে আলোচনা করবো কিভাবে একটি কম্পিউটারে হার্ড ডিস্ক ছাড়া উইন্ডোজ চালানো সম্ভব তা নিয়ে চলুন দেখে নেওয়া যাক।


অনেক সময় দেখা যায় হার্ড ডিস্ক নষ্ট তাই পিসি রেখে দেই জাদুঘরে অথবা স্টোর রুমে। তখন কি আর করা বলে ওটার চিন্তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে দেই যতক্ষন না নতুন একটি হার্ড ডিস্ক কিনে আনা হচ্ছে। তবে আমরা চাইলেই সেই পড়ে থাকা কম্পিউটার কে কাজে লাগিয়ে উইন্ডোজ চালাতে পারি হার্ড ডিস্ক ছাড়া।এই ট্রিক টির মাধ্যমে হয়তো আপনি সেরে নিতে পারবেন আপনার প্রয়োজনীয় কাজ গুলো।
                  আপনি হয়তো ভাবছেন উইন্ডোজ টা তাহলে কিভাবে চালু হবে যেহেতু তার Storage এই থাকবেনা। 
(আলাদিনের জীন আইসা জাদু দিয়া উইন্ডোজ চালাইবো নাকি ?)- Just For Fun 🙂
 আপনাকে স্বাগতম একটু সহজ করে বলছি নিচে থেকে দেখে নিন এই Experiment করতে কি লাগবে:

1. একটি Pen Drive 32 GB .

2. Windows 7,8,10 এর ISO ফাইল।



3. WinToUSB এর Full Version সফটওয়্যার ।

টিউটোরিয়াল শুরু করার আগে সফটওয়্যার সম্পর্কে কিছু জেনে নেওয়া যাকঃ

WinToUsb

এই  সফটওয়্যার টি তৈরী করেছে The EasyUEFI Development Team.
WinToUSB সফটওয়্যার টি প্রথম প্রকাশ করা হয় ২০১৬ সালের জুলাই মাসের ৬ তারিখ।
বর্তমানে এর তিনটি ভার্সন পাওয়া যায়ঃ
১. WinToUSB (Free)
২. WinToUSB Professional – মূল্য ২৯.৯৫ ডলার
৩. WinToUSB Enterprise    – মূল্য ১৯৯.৯৫ ডলার
আমাদের অবশ্যই WinToUSB Enterprise লাগবে কারণ এর ফ্রি ভার্সনে আপনি সকল সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন না।
WinToUSB দিয়ে অনেক ধরনের কাজ করা যায় তবে আমি শুধু Experiment এর জন্য যা প্রয়োজন তাই দেখাব।
তাহলে চলুন ফিরে যাওয়া যাক টিউটোরিয়ালেঃ
ধরুন আপনার একটি কম্পিউটার রয়েছে তার Hard Disk নষ্ট তাই চালাতে পারছেন না তবে আপনার কাছে একটি Pen Drive রয়েছে তবে আপনি কিন্তু চাইলে সেই Pen Drive এ Windows ইন্সটল করতে পারবেন অথবা চাইলে একটি Portable Windows তৈরী করে নিতে পারেন যাতে যে কোন কম্পিউটার থেকে তা চালাতে পারেন।
এর সুবিধা হলো আপনি উইন্ডোজ টি Hard Disk ছাড়াও চালাতে পারবেন অথবা Pen Drive এ বহন করতে পারবেন।
আমি একটি ছোট্ট উদাহরন দিচ্ছি আরো ভালোভাবে বুঝানোর জন্যঃ
“ধরুন আপনার পিসির উইন্ডোজ নষ্ট হয়ে গেল এবং আপনার কাছে সেই মুহুর্তে উইন্ডোজ দেওয়ার মত সময় নেই অথবা উইন্ডোজ ইন্সটল দেওয়ার সামগ্রী নেই কিন্তু আপনার একটি জরুরী ফাইল না হলেই নয় তখন হয়তো আমার আইডিয়া টি আপনার কাজে লাগতে পারে , তখন আপনি পেন ড্রাইভ থেকে উইন্ডোজ চালু করে Hard Drive থেকে File সংগ্রহ করতে পারবেন।”
“অথবা কারো পিসি পাসওয়ার্ড দেওয়া তখন আপনি চাইলে তার পিসির পাসওয়ার্ড না জেনেই তার Hard Disk এ ঘুরে বেড়াতে পারবেন।”
এছাড়াও অনেক কিছুই হয়তো করা যাবে যা আপনার মস্তিষ্ক কাজে লাগিয়ে খুজে নিবেন।
তাহলে প্রথমে ডাউনলোড করতে হবে সফটওয়্যার টি যা পোষ্টের শেষ প্রান্তে সংযুক্ত রয়েছে ডাউনলোড এবং Extract করে ফেলুন।
 প্রথমে WinToUSB ওপেন করুন।
ISO আইকনে ক্লিক করুন Browse করে আপনার ডাউনলোড করা Windows এর ISO ফাইলটি Select করে দিন।
এখন কথা হলো  Windows ISO ফাইলটি যদি আপনার কাছে থাকে তবে ভালো নয়তো নিচে থেকে  ডাউনলোড করে নিন Stylish  Alien Windows 7 এর ISO.
Download হয়ে গেলে উপরের স্টেপ টি শেষ করুন এবং Next বাটনে ক্লিক করুন।
Please Select The Destination Disk এর ঘরে আপনার Pen Drive টিকে নির্বাচন করুন।
এরপর MBR for BIOS and UEFI নির্বাচন করতে চেক বক্সে ক্লিক করুন এবং সবশেষে Yes বাটনে ক্লিক করুন।
কিছু মুহুর্ত আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে 
এবার VHD নির্বাচন করুন Win7 এর জন্য এবং VHDX দিন Win 8/10 এর জন্য এবং আপনার Pen Drive এর ১০০% Storage নির্বাচন করে Next বাটনে ক্লিক করুন।
এখন অপেক্ষার পালা । একটা কথা অনেক কে বলতে শুনেছিলাম যে 
“আশায় থাকো কাউয়া পাকলে খাইয়ো ডাঊয়া”
 আমার মনে হয় কথাটি দিয়ে তারা বুঝাতে চেয়েছে অপেক্ষা করো ফলটি পেকে গেলে তার পর খেয়ো।
আমার অবস্থাও ঠিক একই রকম।
তবে কথায় আছে “সবুরে মেওয়া ফলে” তাই অপেক্ষা করতেছি।
অবশেষে ১০০% সম্পূর্ণ হলো এখন Exit বাটনে ক্লিক করুন।
এবার আপনি যে কম্পিউটার থেকে উইন্ডোজ চালাতে চান সেই পিসিতে পেন ড্রাইভ সংযুক্ত করে Boot Menu তে চলে যান।

এবার আপনার কম্পিউটার এর ব্রান্ড অনুযায়ী  Boot Menu তে প্রবেশ করে Pen Drive নির্বাচন করুন।

Pen Drive এ Windows ইন্সটল না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন । সময় লাগবে মোটামুটি যেমন টি আপনার উইন্ডোজ ইন্সটল দেওয়ার সময় লেগে থাকে আর কি।

সম্পূর্ন শেষ হয়ে গেলে নিচের মত চালু হয়ে যাবে আপনার Portable Windows 7.

এবার আপনি চাইলে হার্ড ডিস্ক নেই এমন পিসিতে চালাতে পারবেন উইন্ডোজ ৭ অথবা ব্যবহার করতে পারবেন Portable Windows হিসাবে অথবা পাসওয়ার্ড ব্যতীত যে কোন পিসিতে প্রবেশের জন্য।

সবশেষে WinToUSB Download Link নিচে দেওয়া হলো।

Download Link

আর এভাবে আপনি চাইলে উইন্ডোজ ৭/৮/১০ যে কোন একটি পোর্টেবল করে চালাতে পারবেন।
তবে আপনার পিসির Ram ২GB এর উপরে হলে ভালো হয়।

যদি কোন সমস্যা থাকে তবে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।

তাহলে আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে ।

সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স এবং আমার ব্লগ 

আপনার পিসির জন্য ডাউনলোড করে নিন Baidu / Spark Browser আর উপভোগ করুন স্পেশাল কিছু ফিচার

আজকে আপনাদের মাঝে হাজির হলাম নতুন এবং ভাল মানের গতিশীল একটি ব্রাউজার।
যারা মজিলা , ক্রোম , ম্যাক্সট্রোন , টর্চ , অপেরা ইত্যাদি ব্রাউজার ব্যবহার করতে করতে বোরিং হয়ে গেছেন ,
আমার মত তারা এর ফিচার গুলো দেখে নিন। ভাল লেগে যাবে ১০০% গ্যারান্টি।
তো কি ভাল লেগে যাবে তা একনজর দেখে নিন।

Baidu অথবা Spark Browser 



এতে যে সকল ফিচার আছে তা এক নজর দেখে নেওয়া যাকঃ
  • বিল্ড ইন টরেন্ট ডাউনলোড ম্যানেজার।
  • ইউটিউব , ফেসবুকসহ জনপ্রিয় সাইট থেকে ডাইরেক্ট ভিডিও ডাউনলোড করুন কোন প্রকার সফটয়্যার ছাড়া এক ক্লিকে।তাও আবার HD720p এবং 360p অথবা Mp3.
  • ডাউনলোড করা অবস্থায় ভিডিও প্লে করার ব্যবস্থা।
  • Mouse Gestures যা আপনার ব্রাউজিং এর ধারনা পাল্টে দিতে পারে।
  • আপনার Account Syncing এর ব্যবস্থা।
  • কম্পিউটার দিয়ে Whatsapp চালানোর সু-ব্যবস্থা।
  • আর রয়েছে অসংখ্য এড-অন্স।

 

যার দরকার সে নিচ হতে ডাউনলোড করে নিতে পার।

 

Baidu/Spark Browser ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন।

সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স

 

Format Factory 4.6.1.0 Windows PC Converter ডাউনলোড করে নিন Latest Update

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হলাম

 Format Factory 4.6.1.0 Windows PC Converter 

এটা নিয়ে তেমন কিছু বলার নাই তবে এটি আমার কাছে জনপ্রিয়তার শীর্ষে কারন মূলত এটি ফ্রী , নাই লাইসেন্স এর ঝামেলা আর এর ফিচার যা অনেকটা প্রিমিয়াম Converter এর মত ।
দেখে নিন এর ফিচারঃ

যে কোন ভিডিও ফাইল থেকে  MP4/3GP/MPG/AVI/WMV/FLV/SWF Format এ Convert করতে পারবেন
 যে কোন অডিও ফাইল থেকে  MP3/WMA/AMR/OGG/AAC/WAV Format এ Convert করতে পারবেন
 যে কোন  Picture ফাইল থেকে JPG/BMP/PNG/TIF/ICO/GIF/TGA Format এ Convert করতে পারবেন
 চাইলে DVD Rip করে ভিডিও অথবা অডিও Convert করতে পারবেন ।
এছাড়াও যে সকল সাপোর্ট করবে iPod/iPhone/PSP/BlackBerry format ।
পারবেন Watermark বসাতে এছাড়াও আছে  RMVB , AV Mux সাপোর্ট ।
দেখে নিন ব্যবহারকারী দের দেওয়া রিভিউ
আরো আছে PDF থেক Html করা
ভিডিও , অডিও Joiner.
৬২ টি ভাষা Support .করে তার মধ্যে আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো ২১ শে ফেব্রুয়ারীর বাংলা ভাষা যা আমাদের মাতৃভাষা ।
                                       
যদি ভাল লাগে তবে Install করে দেখতে পারেন।
যদি রিভিউ টি ভাল লাগে তবে কমেন্টে জানাবেন ।
আর যদি মনে করেন Format Factory আপনার দরকার তবে নিচে লিংক দেওয়া হলো।




আজকের  জন্য বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে ।


সৌজন্যে ঃ সাইবার প্রিন্স 



ডাউনলোড করে নিন ১৬০০ টাকা মূল্যের সফটওয়্যার আর পিসিকে রাখুন Super Fast সাথে এক সফটওয়্যার দিয়ে অনেক ধরনের কাজ

ডাউনলোড করে নিন ১৯.৯৯$ ডলার মূল্যের 

Advanced system care pro  Full Version

 With Serial Key + Pro Feature Unlock করার নিয়ম সম্পূর্ন ফ্রী 

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন । চলে এলাম আপনাদের মাঝে Advanced system care pro  Full Version শেয়ার করার জন্য ।

জেনে নেওয়া যাক Advanced System Care Full Version সম্পর্কেঃ

Advanced System Care Pro  Full Version এর দাম বাংলাদেশী টাকায় ১৬০০ টাকা ।
যদিও এর ফ্রী ভার্সন পাওয়া যায় আপনি চাইলেই ফ্রী ভার্সন ডাউনলোড করে চালাতে পারবেন কিন্তু Pro Feature গুলো আপনারা ফ্রী ভার্সন থেকে উপভোগ করতে পারবেন না তাই বিস্তারিত পড়ে নিন এর সম্পর্কে।
ফুল ভার্সনের সুবিধা 
Advanced System Care একটি শক্তিশালী সফটওয়্যার যা দিয়ে স্ক্যান , মেরামত , এবং পিসির বিভিন কন্টেন্ট
অপটিমাইজেশন করতে পারবেন। শুধু এটুকুতে শেষ নয় এটা দিয়ে Junk ফাইল , Registry ফাইল ছাড়াও অদরকারী সকল ফাইল পরিস্কার করতে সক্ষম ।যা আপনার পিসিকে করে তুলবে অনেক দ্রুতগতি সম্পূর্ন।

Clean & Optimize:

আপনার Boot Time করে দিবে Fast . প্রাইভেসি , শর্টকাট , স্পাইওয়্যার , ইন্টারনেট বুস্ট , সিকিউরিটি , Vulnerability , ডিস্ক Defragment সমস্যার সমাধান করে নিতে পারবেন এক ক্লিকে।
Speed Up:
যদি আপনার পিসি স্লো অথবা লো কনফিগের হয়ে থাকে তবে Turbo Boost অপশনে গিয়ে  Turn on করে পেতে পারেন সর্বোচ্চ প্রসেসিং গতি।করতে পারবেন Hardware Accelerate , Deep Optimization অথবা App/Toolbar Cleaner এর মাধ্যমে উপভোগ করতে পারবেন অসাধারন Operate এর অভিজ্ঞতা ।

Protect:

এই একটি সফটওয়্যার দিয়ে উপভোগ করতে পারবেন সেই রকম পিসি নিরাপত্তা ।
যেমন FaceID দিয়ে পিসি লক , ব্রাউজার Anti Tracking , Real Time Protector , ইন্টারনেট ব্রাউজিং এর সময় Advertise বন্ধ , Home Page সার্চ ইঞ্জিন Fixed ও DNS এর নিরাপত্তা।

Toolbox:
Uninstall করতে পারবেন সব জেদী সফটওয়্যার যা আপনার পিসি ছেড়ে যেতে চায়না ।

ড্রাইভার আপডেট , Defragment আপনার পিসি Hard Disk টিকে ভাল রাখতে , ম্যালওয়্যার নিধন এর কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।উইন্ডোজ সমস্যা সমাধান করা  সাথে বড় ফাইল / খালি ফোল্ডার / Clone ফাইলগুলো নিজের মত করে সমাধান করা । Auto Shutdown , Program Deactivator , Smart Ram নিয়ন্ত্রন করা।

 এছাড়াও চাইলে Action Center এ গিয়ে অন্যান্য Product গুলো ক্রয় করে ব্যবহার করতে পারবেন।
যেসব নতুন ফিচার যোগ করা হয়েছে Advance System Care Pro ১১.১.০.১৯৮ ভার্সনেঃ
উইন্ডোজ ১০ এর প্রাইভেসি সমস্যার সমাধান।

FaceID দিয়ে নিরাপত্তার ব্যবস্থা ।
DNS নিয়ন্ত্রন ।

এবার যারা দরকারী মনে করছেন সফটওয়্যারটিকে তারা নিচের লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিন।

যেভাবে Pro ভার্সন করবেনঃ
প্রথমে উপরের লিংক থেকে জিপ ফাইলটি ডাউনলোড করে নিন।

জিপ ফাইলটি Extract করুন ।

Extract করলে উপরের মত একটি EXE ফাইল পাবেন ফাইলটি Install করে ফেলুন।
Accept
Extract
Password: www.bdtechteam.ml
 পাসওয়ার্ড  দরকার পড়বে পাসওয়ার্ড দিন।
এবার Advance System Care টি Install করুন ।
হ্যা অবশ্যই ইন্টারনেট কানেকশন বন্ধ করে নিতে হবে।
Install হয়ে গেলে System Tray থেকে সফটওয়্যার টি Exit করে দিন।
এবার উপরের দেখানো ফোল্ডারে যান এবং  ফাইলগুলো একবার করে ওপেন করুন।
এবার Serial key ফোল্ডারে যান ।
একদম নিচের সিরিয়াল কী দিয়ে Advanced System Care টি ফুল ভার্সন করে নিন।

আজকের জন্য বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।
সৌজন্যে ঃ Cyber Prince

Chinese Allwinner ক্যাটাগরীর Android Tablet অথবা Mobile Usb Cable দিয়ে Flash করার নিয়ম।

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন । 

আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হলাম 

শুধুমাত্র ইউএসবি ক্যাবল ব্যবহার করে যেভাবে Allwinner ক্যাটাগরীর অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল/ট্যাব ফ্ল্যাশ করতে হয়

 তার সম্পূর্ন টিউটোরিয়াল নিয়ে ।

Phoenix Suit একটি ছোট টুল যা দিয়ে আপনি আপনার অ্যান্ডেয়েড মোবাইলের Stock Fimware ( img ) ফ্ল্যাশ করতে পারবেন । তবে Phoenix Suit দিয়ে আপনি সকল অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস ফ্ল্যাশ করতে পারবেন না । এটি শুধু মাত্র Allwinner Cpu Based ডিভাইস গুলোতে কাজ হবে।

এখন অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে Allwinner Cpu Based ডিভাইস কোন গুলো ?
তাহলে এর বিস্তারিত জেনে নিনঃ



২০১২ থেকে ২০১৩ পৃথিবীর ১ নম্বর অ্যান্ড্রয়েড প্রসেসর নির্মাতা ছিল Allwinner . 
Q4 2013 তে চাইনিজ মার্কেটের প্রসেসর বানায় Allwinner যা Digitimes সূত্র অনুযায়ী Rockchip চাইনিজ মার্কেটে প্রচন্ড ক্ষতির সম্মুখীন হয় যার ফলে তারা ৪ নম্বর এ চলে আসে । তবে পরবর্তীতে Intel এর বদৌলতে তারা অনেক উন্নতি সাধন করে ।

তাদের তৈরী করা মডেল গুলো হলো A10 , A10s , A13 , A20 , A23 , A31 , A31s , A33 , A80 Octa , A83T , A64 
তাহলে বুঝতেই পারছেন শুধু মাত্র উপরের মডেলের প্রসেসরের জন্য আমার পোস্টটি প্রযোজ্য ।

তাহলে শুরু করা যাকঃ

প্রথমে পোষ্টের নিচের লিংক থেকে সফটওয়্যার টি ডাউনলোড করে নিতে হবে।
দেখে নেওয়া যাক এর ফিচারঃ



Flash Stock Firmware:


প্রথমত আপনি Allwinner Based যে কোন  Device এর স্টক ফার্মওয়্যার ফ্ল্যাশ করতে পারবেন ।
এর জন্য শুধু  মাত্র আপনার ডিভাইস অনুযায়ী স্টক ফার্মওয়্যার টি ডাউনলোড অথবা সংগ্রহ করে করে নিতে হবে।
আর সংগ্রহ করা স্টক ফার্মওয়্যারটি Software টিকে দেখিয়ে দিতে হবে আর শুধুমাত্র আপগ্রেড এ ক্লিক করে আপনার ডিভাইসটিকে ফ্ল্যাশ করে ফেলতে পারবেন ।

Flash Recovery Image:


এই সফটওয়্যার টি দিয়ে আপনি আপনার ডিভাইসের রিকোভারি ইমেজ ও ফ্ল্যাশ করতে পারবেন ।
যেভাবে আমি বলেছি ফ্ল্যাশ করার কথা ঠিক একই রকম উদাহরন হিসাবে “প্রথমে আপনার স্টক ফার্মওয়্যার টি সফটওয়্যার এ লোড করুন আপগ্রেড এ ক্লিক করলে কিছু অপশন পাবেন আপনি রিকোভারি সিলেক্ট করে দিন ব্যস হয়ে গেল রিকোভারি” ।

Flash Boot Image:




অনেক সময় দেখা যায় আমাদের ডিভাইসগুলো বুট ইমেজ এ গিয়ে সমস্যা দেখা দেয় তখন শুধু এইটুকু সমস্যার জন্য মোবাইল দোকানে দৌড়াতে হয় । কি দরকার দৌড়া ঝাপ করার এই সফটওয়্যার আপনাকে বুট ইমেজ ফ্ল্যাশ করার সুবিধাও দিবে।

 কি করতে হবে?
 এর জন্য শুধু  মাত্র আপনার ডিভাইস অনুযায়ী স্টক ফার্মওয়্যার টি ডাউনলোড অথবা সংগ্রহ করে করে নিতে হবে।
আর সংগ্রহ করা স্টক ফার্মওয়্যারটি Software টিকে দেখিয়ে দিতে হবে আর  আপগ্রেড এ ক্লিক করে আপনার বুট ইমেজটি সিলেক্ট করে দিতে হবে ডিভাইসটিকে ফ্ল্যাশ করতে।

Backup , Restore And App Install:

শুধু মাত্র উপরের সুবিধাই নয় এর আরেকটি চমৎকার ফিচার হলো আপনি ফ্ল্যাশ করার আগে হোক বা রিসেট করার আগেই হোক আপনি আপনার ডিভাইসের সকল কিছুর ব্যাকআপ নিতে পারবেন ।যা আপনার কম্পিউটারের হার্ড ড্রাইভে সংরক্ষন হবে।
আবার যখন ইচ্ছা তখন Restore করতে পারবেন ।
কিভাবে করবেন? সফটওয়্যারটি ওপেন করুন ট্যাব গুলো থেকে ব্যাকআপ এন্ড রিস্টোর সিলেক্ট করে আপনার সমস্যার সমাধান করতে পারবেন ।

উপরের লেখা পড়ার পর যারা বুঝে গেছেন ডাউনলোড করে রেখে দিন হয়তো কাজে লাগবে আর যারা এখনও একটু সমস্যা মনে করছেন তারা বিস্তারিত নিচে দেখে নিতে পারেন আমার টিউটোরিয়াল টি ।

কাজটি করতে আপনার যা যা লাগবে ঃ

  1. একটি উইন্ডোজ পিসি অথবা ল্যাপটপ ।
  2. আপনার Allwinner Cpu Based ডিভাইস ।
  3. একটি ইউএসবি ক্যাবল ।
  4. অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে ৫০ থেকে ৬০ % চার্জ ।
  5. আপনার মোবাইলের জন্য অ্যান্ড্রয়েড ড্রাইভার (ইন্সট্রল না করলে আপনার ডিভাইস কম্পিউটারে খুজে পাবেনা)
  6.  যা আপনাকে গুগল অথবা কারো থেকে সংগ্রহ করতে হবে।
  7. আর সবচেয়ে বেশী দরকারী স্টক ফার্মওয়্যার এটাও আপনি গুগল থেকে সংগ্রহ অথবা কারো কাছে থেকে খুজে নিন অথবা যারা এসব কাজ করে তাদের থেকে যে কোন ভাবে সংগ্রহ করুন ।
  8. আর একটু চিন্তা করার মত মস্তিষ্ক ।

উপরের সব কিছু কালেক্ট করতে পারলে নিচের পদ্ধতি অবলম্বন করুনঃ





Stock Firmware পাওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায় সার্চ করে । আপনার মোবাইলের মাদারবোর্ডে একটি নাম্বার লিখা আছে নাম্বারটা গুগলে লিখে সার্চ দিন পেয়ে যাবেন । নিচের ছবিট দেখুন।




প্রথমে আপনি ডাউনলোড করা সফটওয়্যার টি Extract করুন । এবার ইন্সট্রল করে ফেলুন।

ইন্সট্রল হয়ে গেলে আপনি সফটওয়্যার টি ওপেন করুন। আর অন্য দিকে আপনার ডিভাইসের অ্যান্ড্রয়েড ড্রাইভার আপনার কম্পিউটারে ইন্সট্রল করে নিবেন।

Power Off করে দিন আপনার ডিভাইসটি । এবং অফ করা অবস্থায় ভলিউম + এবং – দুইটি বাটন চেপে ধরুন ।
এবার ৫ থেকে ১০ বার ভলিউম বাটন চেপে ধরা অবস্থায় পাওয়ার বাটন চাপুন যতক্ষন আপনার ডিভাইসটি সফটওয়্যারের সাথে কানেক্ট না হয় ।
বিঃদ্রঃ ডিভাইসের অ্যান্ড্রয়েড ড্রাইভার আপনার কম্পিউটারে ইন্সট্রল না থাকলে কানেক্ট হবেনা ।

উপরের মত দেখতে পারবেন Firmware এ ক্লিক করুন ডিভাইস ফ্ল্যাশ করার জন্য ।

এবার আপনার সংগ্রহ করা স্টক ফার্মওয়্যার টি লোড করতে Image বাটনে ক্লিক করুন।

উপরের মত থাকবে আপনার স্টক ফার্মওয়্যারটি ইমেজ আকারে ঐটা সিলেক্ট করে দিন ।

এবার Upgrade বাটনে ক্লিক করুন ।

কিছুক্ষন অপেক্ষা করুন ।

আপনার ফার্মওয়্যার আপডেট সম্পূর্ন হয়ে গেছে ।

উপরের মত আসলে ডিসকানেক্ট করে দিন নয়তো সব ফরম্যাট হয়ে যাবে ।

তো আশা করি সবাই বুঝতে পেরেছেন । আপনাদের ভাল লেগে থাকলে নিজেকে কৃতজ্ঞ মনে করবো।

ডাউনলোড লিংক এখানে ক্লিক করুন। 

আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে ।

সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স

Windows 7 সম্পর্কে জেনে নিন আর সাথে বোনাস হিসাবে নিয়ে নিন Top 5 Windows 7 Stylish Edition

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির Windows 7 অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে কিছু কথা বলতে এবং সাথে থাকবে Windows 7 Iso ডাউনলোড লিংক।


আমরা যারা পিসি অথবা ল্যাপটপ চালাই তারা সাধারণত উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করে থাকি এর মূল কারন এর সহজ ফিচার অথবা অসংখ্য সফটওয়্যার অথবা সবাই চালায় বলেই চালাচ্ছি এরকম হতে পারে।
(তবে Expert দের কথা আলাদা)

তবে Windows 7 কেন চালান বা চালাবেন তা নিয়ে আমার আজকের আর্টিকেল টি নয় তাই মূল প্রসংগে ফিরে যাচ্ছি।

Windows  মূলত System Software অথবা Operating System নামে পরিচিত। যার মূল কাজ হলো হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার এর মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করা যাতে আমরা তার মাঝে Window আকারে নানান সফটওয়্যার কিংবা গেমস খেলতে সক্ষম হই সাথে Input এবং Output ডিভাইসের মাধ্যমে সহজভাবে Operate করতে পারি।


Windows 7 এর ইতিহাসঃ


Windows 7 মূলত Personal কম্পিউটার এর জন্য তৈরী অপারেটিং সিস্টেম যার নির্মাতা হলো Microsoft. Windows 7 হলো Windows NT Family এর অংশ যা প্রথম প্রকাশ করা হয় জুলাই মাসের ২২ তারিখ ২০০৯ইং সালে তবে সবার জন্য উন্মুক্ত করে ২২ অক্টোবর ২০০৯ ইং সালে।
Windows 7 একটি Hybrid কার্নেল। Windows 7 বর্তমানে IA-32 এবং *86 এবং 32 বিট এর প্লাটফর্ম থেকে চালানো যাবে।


Windows 7 এর ফিচার সম্পর্কে আর কি জানাবো আপনারা তো আশা করি এতে Expert. তাই আপনাদের সামনে উপস্থাপন করতে যাচ্ছি বোনাস হিসাবে  Windows 7 এর Stylish অথবা Moded পাঁচটি Edition.



Alienware Blue Edition রিভিউঃ



 Alienware  Blue Edition বানানো হয়েছে Windows 7 official কে Customize করে। দেওয়া হয়েছে Awesome Look সাথে Rocket Dock  সংযুক্ত। মোট কথা আপনার পিসিকে একটি ঝাকানাকা রুপ দিতে Alienware Blue  Edition একবার ব্যবহার করে দেখতে পারেন।



সর্বনিম্ন 6 GB খালি স্পেস দরকার হবে Ram 1 GB হলেই হবে  আরো রয়েছে স্পেশাল কিছু ফিচার যা ইন্সটল করলেই বুঝে পাবেন।



Windows 7 Razer Edition রিভিউঃ




Microsoft Net Framework 4.7 আর সাথে USB 3.0 সাপোর্টেড।  Viper Service  Deactive করা হয়েছে। Razor Sound  Pack এবং Icon Pack যুক্ত করা হয়েছে। প্রকৃতি যেমন সবুজ তেমনি সবুজ দিয়ে Customize করা হয়েছে এক কথায় অসাধারন।

সর্বনিম্ন ১০ GB খালি স্পেস থাকতে হবে।
1GB Ram হলেই হবে ।
Core 2 Due এবং উপরের সংস্করনে চলবে।





Windows 7 Rog Rampage Edition রিভিউঃ




Windows 7 Rog Rampage Edition মূলত গেমারদের জন্য Customize করা যাতে থাকছে গেমিং Wide Interface. নতুন সব  Wallpaper এবং  Theme. স্টাইলিশ Start Menu. এছাড়াও পরিবর্তন আনা হয়েছে অনেকাংশে যেমন ধরুন আপডেট করা হয়েছে Software এবং গেমিং সুবিধার্থে কিছু Build সফটওয়্যার পাওয়া যাবে।

ইন্সটল করতে সর্বনিম্ন 10GB খালি জায়গা থাকতে হবে।
1GB  Ram থাকতে হবে।
Core 2 Duo সহ পরের সংস্করনে চলবে।



Windows 7 Golden Editionঃ

Windows 7 Golden Edition দেখতে যেমন চমৎকার ব্যবহারেও মজা আর সাথে Security System টাও অনেক কড়া। যা দেখবেন সব Golden মনে হবে। এট সম্পূর্ণ Lightweight ভার্সন গেমার দের জন্য আমি সাজেস্ট করবো। এতে রয়েছে Built In অনেক সফটওয়্যার সাথে কিছু গেমস ও থাকছে নতুন।
 অসাধারণ Theme Effect  এতে রয়েছে। এক কথায় একটি অসাধারণ অপারেটিং অভিজ্ঞতা দিতে এটি পুরো প্রস্তুত।

10GB খালি স্পেস থাকতে হবে।
1GB Ram লাগবে।
Pentium 4 এবং এর উপরের সংস্করনে চালানো যাবে।



Windows 7 Aero Blue Lite Edition রিভিউঃ


Windows 7 Aero Blue Lite Edition টা সুপার ফাস্ট সাথে গেমারদের পছন্দ । Cpu পাওয়ার কম খরচ করে অন্যগুলোর থেকে। User  Friendly Interface তো আছেই। Aero Blue Lite Edition কে Perfect Security System বলা হয়।

এছাড়াও যে সফটওয়্যার থাকছে Build দেখে নিন
Foxid Reader v2.3
Typing Master Pro v7.0
Internet Download Manager 6.25 Build 12
WinRAR 5.31 Final
USB Disk Security 6.5 Final
Free ISO Burner 1.2
uTorrentPro 3.4.5 Build 41372
Free Fire Screensaver Final
Aero Glass Player and others



চালানোর জন্য 6GB খালি জায়গা থাকতে হবে।
Ram 1 GB হলেই চালানো যাবে।
প্রসেসর 1Ghz হতে হবে সর্বনিম্ন।





তাহলে উপভোগ করুন আর কোন Edition টি আপনার ভালো লেগেছে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।

আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।

Mother Board এর Driver হারিয়ে ফেলেছেন চিন্তা নেই এবার নিমিষেই আপডেট দিন আপনার পিসির ড্রাইভার সাথে ২২.৯৫$ ডলার মূল্যের সফটওয়্যার


ডাউনলোড করে নিন 22.95$ ডলার মূল্যের Iobit Driver Booster PRO  পিসি সফটওয়্যার সম্পূর্ন ফ্রীতে

 


সাথে সিরিয়াল কি এবং Firewall Block করার নিয়ম তো আছেই

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন ।
আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি
আজ তারিখের হিসাবে ডলারের দাম
১ ডলার = ৮৩.৩৮ টাকা
৮৩.৩৮ টাকা * ২২.৯৫ ডলার = ১৯১৩ টাকা

 

প্রথমে জেনে নেই Driver Booster PRO 5.2.0.686 সম্পর্কেঃ

১,০০০,০০০ ড্রাইভার ডাটাবেস Iobit Driver Booster  এ সংরক্ষিত রয়েছে ।
যার মাধ্যমে আপনার পিসির ড্রাইভারের ডিস্ক না থাকলেও শুধু মাত্র ইন্টারনেট কানেকশনের মাধ্যমে
সফটওয়্যার টি ব্যবহার করে  উইন্ডোজ কম্পিউটারের সকল ড্রাইভার আপডেট করতে পারবেন।

 

 

এক নজরে নতুন Iobit Driver Booster PRO  তে যে সকল ফিচার থাকবেঃ

 

New Scan Engine:
নতুন ইঞ্জিন HTTPS সার্ভার যুক্ত করা হয়েছে যার মাধ্যমে নিরাপদে এবং আগের তুলনায় বেশী স্প্রীডে
ড্রাইভার ডাটাবেস ডাউনলোড হবে।
Schedule Design:
শিডিউল ডিজাইন এড করা হয়েছে যাতে ড্রাইভার আপডেট এর ইতিহাস জানা যাবে।
Support Windows 10 Fixed:
উইন্ডোজ 7 , 8 , 8.1 এর জন্য নতুন ডাটাবেস আপডেট করা হয়েছে।
উইন্ডোজ 10 Bulid 14310 এবং পরবর্তী ভার্সন যেমন Anniversary আপডেট এবং Creators আপডেট
সমস্যা সমাধান করা হয়েছে।
 Driver Backups & Restore:
ড্রাইভার Backup এবং Restore ফাংশন পাবেন Pro তে ।
Brand-New UI:
পাবেন নতুন ডিজাইন এবং ইউজার ফ্রেন্ডলী ইন্টারফেস ।
22.95$ ডলার মূল্যের Obit Driver Booster PRO  পিসি সফটওয়্যার সম্পূর্ন ফ্রীতে
 
Auto Driver Update:
প্রো ফিচারে থাকছে নতুন ড্রাইভার ডাটাবেস অটোমেটিক আপডেট সিস্টেম।
প্রথমে নিচে থেকে ফাইলটি ডাউনলোড করে নিন।

 
পাসওয়ার্ড ঃ  www.bdtechteam.ml or DarkMagician.Xyz
 




প্রথমে ডাউনলোড করে নিন এরপর Extract করুন উপরের উল্লেখ করা পাসওয়ার্ড দিয়ে।
Driver Booster Application টি ক্লিক করুন।




 

ইন্সট্রল বাটনে ক্লিক করুন।

ইন্সট্রল হয়ে গেলে ওপেন করবেন না উপরের মত Close করে দিন।
এবার Extract করা ফাইলগুলো থেকে Key ফাইলটি ওপেন করুন।
সিরিয়াল কি কপি করুন।
উপরে দেখানো জায়গায় কপি পেস্ট করুন।
দেখুন লাইসেন্স Active হয়ে গেছে ।
এবার Extract করা ফোল্ডার থেকে Block ফাইলটি খুজে বের করুন এবং ক্লিক করুন।
হ্যা এবার আপনি সফলভাবে প্রো ভার্সন করতে পেরেছেন। 
 যারা সমস্যায় ভুগছেন তারা নিচের ভিডিওটি দেখে নিন।
 
 
যদিও আপডেট দেওয়ার সিস্টেম খুব সহজ তবুও সমস্যা হলে কমেন্ট করুন।
আজকের মত বিদায় দেখা হবে নতুন কিছু নিয়ে অন্য কোন দিন।
সৌজন্যে ঃ সাইবার প্রিন্স

[PC] Download করে নিন ৪১২৭ টাকা মূল্যের Converter সফটওয়্যার আর Covert করুন Video, Audio Format আরামসে

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছে আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হলাম
আপনার পিসির জন্য  ৪,১২৭ টাকা মূল্যের কনভার্টার রিভিউ সাথে ডাউনলোড লিংক 

দেখে নেওয়া যাক কি কি সুবিধা পাবেনঃ

আমরা ভিডিও / অডিও কনভার্ট করার জন্য নানা ধরনের কনাভার্টার ব্যবহার করে থাকি । কিন্তু আমি বলবো আপনার আগের সকল অভিজ্ঞতা বদলে দিতে সক্ষম ।
অনেকে হয়তো জিজ্ঞাসা করবেন কি আছে এমন ?
প্রথমত এটি ব্যবহার করে কনভার্ট করতে পারবেন আগের তুলনায় ৩০ গুন কম সময়ে আর সাথে ভাল কোয়ালিটি তো আছেই । আর নিচের টাকার অংকটা দেখে নিবেন কারন এত টাকা যেহেতু কনভার্টার টার দাম হয়ে থাকে অবশ্যই
ভালো কিছু ফিচার ও আছে তো চলুন আরো বিস্তারিত জানাচ্ছি আপনাদের ।
৪৯.৫৫ ডলার = ৪১২৭.৫২ টাকা ( ১১-০২-২০১৮)

৩০ গুন কম সময়ে কনভার্ট করা ছাড়াও আপনি ২০০ ফরম্যটের ভিডিও কনভার্ট করতে পারবেন যা হয়তো অনেক কনভার্টারে আপনি পাবেন না । আর কনভার্ট কোয়ালিটি অনেক ভালো ঠিক অনেকাংশে আপনার আসল মিডিয়া ফাইলের কাছাকাছি যাবে । NVIDIA NVENC ট্রান্সকোডিং এক্সিলারেশন, 4K UHD ভিডিও রূপান্তর, উচ্চ গুণমান।
Blu-ray সিডি অথবা ডিভিডি থেকে ডাইরেক্ট কনভার্ট করতে পারবেন তাছাড়াও ভিন্ন ২০০ ফরম্যাটে পরিবর্তনের সুবিধা । আরো আছে Blank ডিস্ক কে ডিভিডি বানানো ডাইরেক্ট , কোন আলাদা সফটওয়্যার লাগবেনা Burn করার জন্য।
 আপনি চাইলে আপনার ভিডিও ইডিট করার জন্য এই কনভার্টার টি ব্যবহার করতে পারেন । 
তাছাড়াও ওয়াটারমার্ক ,ব্রাইটনেস কমানো বাড়ানো , Crop  করা স্পেশাল ইফেক্ট যোগ করা , সাব টাইটেল যোগ করা Rotate করা Merge , Compress করার কাজে ব্যবহার করতে পারবেন ।
Batch ভিডিও ডাউনলোড অথবা কনভার্ট  করা তা থেকে ডিভিডি বানানো ।
AMD APP Encoding করে কনভার্ট করে যার ফলে কনভার্ট দ্রুত গতিতে সম্পূর্ণ হবে ।
সারা জীবন ব্যবহারের সুবিধা সাথে ফ্রী আপডেট তবে হ্যা যাদের কাছে লাইসেন্স থাকবে শুধু তাদের জন্য ।
জনপ্রিয় সব Social সাইট থেকে ভিডিও ডাউনলোডের সুবিধা ।
আর সবচেয়ে বেশী আমার পছন্দের সুবধা হলো অনলাইন ভিডিও  যে কোন ফরম্যাটে অথবা যে কোন কোয়ালিটিতে কনভার্ট করে ডাউনলোড করা ।
আরো একটি সুবিধা আপনি উপভোগ করতে পারবেন আর তা হলো ভিডিও রেকর্ড করা ।
আর যে সকল সুবিধা আপনি পাবেন তা ইন্সট্রল করে দেখে নিতে পারেন ।
হ্যা পোস্টটি পড়ার পর যদি মনে করে থাকেন সফটওয়্যার টি আপনার দরকার তবে নিচের লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিবেন ।

Password : www.bdtechteam.ml

  Google Drive Link

যদি কেউ ফুল ভার্সন করতে অসুবিধা মনে করেন তবে কমেন্ট করে জানাবেন।

আজকের মত বিদায় , দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে ।

Kali Linux Install বা Bootable না করে Windows চলাকালীন সময়ে যেভাবে চালানো যায়

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হলাম Kali Linux চালাতে চান তাও আবার Install এবং Bootable Pendrive বাদে তবে পোষ্ট টি চোখ বুলিয়ে নিতে পারেন কাজে লাগতে পারে।

Kali Linux আমরা ইন্সটল অথবা বুট করে চালিয়েছে আজ একটু অন্যভাবে Kali Linux লাইভ চালাবো। যে কোন উইন্ডোজ হক না কেন আমরা সাধারণত সফটওয়্যার ইন্সটল এবং চালিয়ে থাকি যা আমাদের একটি উইন্ডো আকারে উপস্থাপন করা হয় , আজকে আমার পোষ্ট এর কাজ হবে Kali Linux কিভাবে অন্যান্য সফটওয়্যারে মত উইন্ডো আকারে চালাবেন তা নিয়ে।
কাজটি করতে যা প্রয়োজন হবেঃ
( ক ) Kali Linux এর ISO ফাইল।
( খ ) Oracle VM Virtual Box.
[“যেহেতু উইন্ডোজ আগে থেকেই আপনাদের কাছে থাকবে তাই উইন্ডোজের ISO ফাইলের কথা উল্লেখ করিনি”]
এবার যদি ডাউনলোড এবং ইন্সটল সম্পূর্ণ হয়ে থাকে তবে নিচের পদক্ষেপ গুলো দেখুন।
আপনার সদ্য Install হওয়া VM Virtual Box সফটওয়্যার টি Open করুন।
উপরের ছবির মত New বাটনে ক্লিক করুন।
Name আপনার ইচ্ছামত একটা দিয়ে দিন উপরে যেমন আমি দিয়েছি Kali Linux.
Type থেকে Linux নির্বাচন করে দিন।
Version থেকে Other Linux 64 Bit / 32 Bit নির্বাচন করুন।
উপরের ছবির মত সব ঠিক মত হয়ে গেলে Next বাটনে ক্লিক করুন।
এবার আমাদের Ram কতটুকু খরচ করে Kali Linux টি চালাব তা নির্বাচন করবো। 
আমি সবচেয়ে Low-Config এ চালিয়ে দেখাব যার Ram 4 GB আমি 2GB নির্বাচন করেছি আপনি ভালভাবে চালাতে 4GB+ নির্বাচন করতে পারেন তবে তা পিসির কনফিগ বুঝে।
এবার Create a Virtual Hard Drive Now নির্বাচন করে Create বাটনে ক্লিক করুন।
এবার VDI (VirtualBox Disk Image) নির্বাচন করে ফেলুন সাথে Next বাটনে ক্লিক করতে ভুলবেন না যেন।
এবার আপনি Dynamically Allocated নির্বাচন করুন।
এবার আপনার ইচ্ছামত জায়গা নির্বাচন করুন মানে দাড়ালো এরকম যে আপনি Kali Linux চালানোর জন্য Hard Disk এ কতটুকু জায়গা খরচ করতে আগ্রহী তা নিজের মত করে নির্বাচন করুন।উপরের সকল কাজ সঠিকভাবে সম্পূর্ন হলে নিচের পদক্ষেপ গুলো অনুসরণ করুন।
এবার উপরের মত আসলে Start বাটনে ক্লিক করুন।
উপরের মত আসলে বুঝে নিতে হবে যে আপনার ডাউনলোড করা ISO ফাইলটি দেখিয়ে দিতে হবে কোথায় আছে।
এবার উপরের মত আপনার ডাউনলোড করা ISO ফাইল টি নির্বাচন করুন সাথে দুইটা ডাবল ক্লিক দিতে ভুলবেন না যেন।
এবার উপরের মত ISO নির্বাচন হয়ে গেলে Start বাটনে ক্লিক করুন।
এবার উপরের মত আসলে Live (686-pae) নির্বাচন করুন।
অপেক্ষা করুন আসিতেছে…………………………
অবশেষে kali Linux লাইভ উপরের চিত্রে।
এরপর ও যদি সমস্যা মনে করেন তবে নিচের ভিডিও টি দেখে আসবেন এক নজরে।

যদি আপনি উপরের নিয়মে সন্তুষ্ট না হয়ে থাকেন তবে 8GB Pendrive থেকে লাইভ চালাতে নিচের পোষ্ট টি দেখুন।

যেভাবে Pen Drive বুটেবল করতে হয় সাথে Zorin OS এর মত যে কোন লিনাক্স পেনড্রাইভ থেকে লাইভ চালাবেন ইন্সট্রল না করে তার সম্পূর্ন টিউটোরিয়াল । যারা Zorin OS চালাতে পারেন নি তারা দেখুন 

যদি আমার এই ট্রিক টি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তবে কমেন্ট করতে ভুলবেন না যেন।
অবশেষে আজকের জন্য বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।
সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স এবং ইউটিউব

Kali Linux Iso Latest Update 2019 এর Download Link সাথে ছোট্ট রিভিউ

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হলাম জনপ্রিয় Linux Distro “Kali Linux” এর ISO ফাইলটির সর্বশেষ ভার্সন।

চলুন Kali Linux এর ব্যাপারে কিছু জেনে নেওয়া যাকঃ
কালি লিনাক্স ডিজিটাল ফরেনসিক এবং Penetration Testing এর জন্য ডিজাইন করা।Kali Linux ডেবিয়ান-উপর ভিত্তি করে বানানো Linux distribution.Kali Linux হলো লিটারেড লিনাক্সের অপারেটিং সিস্টেম এবং লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশনের একটি নতুন প্রজন্ম।


Kali Linux কার্নেল টি Offensive Security Ltd. দ্বারা পরিচালিত এবং অর্থায়নে পরিচালিত। মাতি আহারিণী, ডেভন কেয়ার্নস এবং Raphaël Hertzog হলো এর মূল ডেভেলপার।

 

Kali Linux সর্ব প্রথম প্রকাশিত হয় ২০১৩ সালের মার্চ মাসের ১৩ তারিখ।Kali Linux এ ব্যবহার করা হয়েছে Gnome Shell এবং এতে OS Family হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে Unix-Like.x86, x86-64, armel, armhf Platform এর জন্য প্রযোজ্য রয়েছে kali Linux.

 

ডাউনলোড করতে চান ২০১৯ এর নতুন আপডেট ISO ফাইলটি তবে নিচে দেখুন ডাউনলোড লিংক এর জন্য।
এখন কথা হলো ভাইজান ডাউনলোড তো করলেন এবার চালানোর পালা।
আপনি যদি Kali Linux এ আগ্রহী না হয়ে থাকেন তবে নিচের লিংকটি দেখুন হয়তো ভালো লেগেও যেতে পারে।
আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।
সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স

পিসি কি শুধু Hang করে তবে পিসি দ্রুত গতি রাখতে ডাউনলোড করে নিন Baidu PC Faster 2019

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ হাজির হয়েছি PC Faster সফটওয়্যার টি নিয়ে।


ধরুন অনেক দরকারি একটি কাজ করছেন আর সে সময় আপনার পিসি শুধু Hang হয়ে থাকছে তখন মাথা গরম হয়ে যায় আজ চলুন কিভাবে পিসিকে একটু Fast রাখা যায় তা নিয়ে ঘেটে দেখি।



আপনারা  হয়তো আপনার পিসি ফাস্ট কাজ করানোর জন্য অনেক সফটওয়্যার ব্যবহার করে থাকেন ।কিন্তু পোহাতে হয় License বা Serial Key এর ঝামেলা।

অথবা Trial পর্যন্তই কারো দৌড় শেষ হয়ে যায়।কেউ বা ক্রাক ফাইল খুজে নিয়ে ফুল ভার্সন করে নেন কিন্তু এক বছর পর নতুন লাইসেন্স খুজা।
এছাড়াও বহুত সমস্যায় ভুগতে হয়।
 কিন্তু আজ আপনাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিব অসাধারন এবং কাজের একটি সফটওয়্যার যার কোন সিরিয়াল কী দরকার নেই এবং আজীবন মেয়াদী  এবং এওয়ার্ড প্রাপ্ত কার্যকরী সফটওয়্যার।
তে যে ফিচার গুলো আছে তা একনজর দেখে নেওয়া যাক।
  • এতে রয়েছে ডায়নামিক সব স্ক্রিন ফিচার।


  • ওয়াইফাই শেয়ার করার ব্যবস্থা ।


  • এক ক্লিকে পিসি বুস্ট পারফরমেন্স। 


  • বিল্ড ইন ভাইরাস স্ক্যানার ।


  • সফটওয়্যার আন-ইন্সট্রলার ব্যবস্থা।
  • বড় বড় ফাইল চেক এবং ক্লিন ফিচার।
  • প্রাইভেসি ক্লিনার।
  • ব্রাউজার প্লাগইন ক্লিনার।
  • স্টার্ট আপ সিস্টেম কন্ট্রোলার।
  • সিস্টেম রিপেয়ার টুলস।
  • গেমস বুস্টার মুড।
  • ডিস্ক ডিফ্রাগমেন্ট টুলস বিল্ড ইন।


কেন ডাউনলোড করবেন এটা কাজ কেমন করবে এমন চিন্তা মনে যদি এসে থাকে তো নিচে দেখুন।এবার ডাউনলোড করার পালা যার লাগবে সে নিচ হতে ডাউনলোড করে নিন।

জকের জন্য বিদায় দেখা হবে নতুন কিছু নিয়ে অন্য কোন দিন।সবাই ভাল থাকবেন এবং আশা রাখি আমাদের সাথেই থাকবেন।

ডাউনলোড এবং Active করে নিন Microsoft Office 2019 সম্পূর্ন Legal উপায়ে

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ হাজির হয়েছি Microsoft Office 2019 ডাউনলোড এবং Legal উপায়ে Active করার টিউটোরিয়াল নিয়ে।
Microsoft Office এর অনেক সংস্করণ এখন পর্যন্ত প্রকাশ হয়েছে তবে তার মধ্যে Microsoft Office 2019 সর্বশেষ আপডেট সংস্করণ।
তবে দুঃখ জনক হলেও সত্যি যে আপনি এই ভার্সন Windows Xp, 7 কিংবা 8.1 থেকে চালাতে পারবেন না। Microsoft Office 2019 চালাতে হলে আপনার Windows 10 Install করা থাকতে হবে।
MS Office 2019 ডাউনলোড করার নিয়মঃ
যদি আপনার Office 365 subscription করা থাকে তবে তা নিজে থেকেই আপডেট হয়ে যাবে। 
আর অন্য দিকে আপনি Microsoft Office এর পুরানো ভার্সন ব্যবহার করে থাকেন তবে Microsoft Office 2019 চালানোর আগে তা Uninstall করে নিন।
যদি আপনার কাছে Microsoft Office 2019 সফটওয়্যার থেকে থাকে তাহলে Install করুন আর যদি না থাকে তবে নিচের লিংকে গিয়ে ডাউনলোড করে নিন।
ডাউনলোড হয়ে গেলে Install করার পালা ।
Setup.exe ফাইলটিতে প্রবেশ করুন।
Yes বাটনে ক্লিক করে সামনে আগানোর অনুমতি দিয়ে দিন।
অপেক্ষা করতে হবে আপনি চাইলে ইউটিউব থেকে অপেক্ষায় থেকেছি গান টি শুনে আসতে পারেন। Install হয়ে গেলে কিছু তথ্য পূরন করতে হতে পারে।
যদি উপরের মত License Key এর জন্য লাফালাফি করতে থাকে তবে Close বাটনে ক্লিক করে বিদায় করুন।
Accept And Start Word বাটনে ক্লিক করুন ।
তাহলে আপনি ৭ দিন Trial ভার্সন চালাতে পারবেন।
Microsoft Office 2019 Active করার নিয়মঃ
এবার নিচে থেকে কোডটি কপি করুন 
@echo off
title Activate Microsoft Office 2019 ALL versions for FREE!&cls&echo ============================================================================&echo #Project: Activating Microsoft software products for FREE without software&echo ============================================================================&echo.&echo #Supported products:&echo – Microsoft Office Standard 2019&echo – Microsoft Office Professional Plus 2019&echo.&echo.&(if exist “%ProgramFiles%Microsoft OfficeOffice16ospp.vbs” cd /d “%ProgramFiles%Microsoft OfficeOffice16”)&(if exist “%ProgramFiles(x86)%Microsoft OfficeOffice16ospp.vbs” cd /d “%ProgramFiles(x86)%Microsoft OfficeOffice16″)&(for /f %%x in (‘dir /b ..rootLicenses16ProPlus2019VL*.xrm-ms’) do cscript ospp.vbs /inslic:”..rootLicenses16%%x” >nul)&(for /f %%x in (‘dir /b ..rootLicenses16ProPlus2019VL*.xrm-ms’) do cscript ospp.vbs /inslic:”..rootLicenses16%%x” >nul)&echo.&echo ============================================================================&echo Activating your Office…&cscript //nologo slmgr.vbs /ckms >nul&cscript //nologo ospp.vbs /setprt:1688 >nul&cscript //nologo ospp.vbs /unpkey:6MWKP >nul&cscript //nologo ospp.vbs /inpkey:NMMKJ-6RK4F-KMJVX-8D9MJ-6MWKP >nul&set i=1
:server
if %i%==1 set KMS_Sev=kms7.MSGuides.com
if %i%==2 set KMS_Sev=kms8.MSGuides.com
if %i%==3 set KMS_Sev=kms9.MSGuides.com
if %i%==4 goto notsupported
cscript //nologo ospp.vbs /sethst:%KMS_Sev% >nul&echo ============================================================================&echo.&echo.
cscript //nologo ospp.vbs /act | find /i “successful” && (echo.&echo ============================================================================&echo.&echo #My official blog: MSGuides.com&echo.&echo #How it works: bit.ly/kms-server&echo.&echo #Please feel free to contact me at msguides.com@gmail.com if you have any questions or concerns.&echo.&echo #Please consider supporting this project: donate.msguides.com&echo #Your support is helping me keep my servers running everyday!&echo.&echo ============================================================================&choice /n /c YN /m “Would you like to visit my blog [Y,N]?” & if errorlevel 2 exit) || (echo The connection to my KMS server failed! Trying to connect to another one… & echo Please wait… & echo. & echo. & set /a i+=1 & goto server)
explorer “http://MSGuides.com”&goto halt
:notsupported
echo.&echo ============================================================================&echo Sorry! Your version is not supported.&echo Please try installing the latest version here: bit.ly/aiomsp
:halt
pause >nul
এবার উপরের মত Text Document এ প্রবেশ করুন নয়তো সরাসরি Notepad চালু করুন।
Copy করা কোডটি Paste করুন এবং File Menu তে গিয়ে Save As নির্বাচন করুন।
ফাইলটিকে “office2019.cmd” নাম দিয়ে Save বাটনে ক্লিক করুন।
এবার আমাদের তৈরী করা Office2019.cmd ফাইল টি কে Run As Administrator এ ক্লিক করে চালু করবো।
Yes Button এ ক্লিক করে সামনে আগানোর অনুমতি দিন।
তাহলে সফলভাবে Active হয়ে গেল।
আরো তথ্যঃ
 NMMKJ-6RK4F-KMJVX-8D9MJ-6MWKP  এই রইলো KMS Client Key.
আর Activation এর মেয়াদ ১৮০ দিন।
আর কারো যদি CMD তে সমস্যা হয় তা পুনরাবৃত্তি করে দেখতে পারেন।
তাহলে আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে ।